শাহজালালে ইয়াবা জব্দ : দুজন রিমান্ডে

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১১:৩৫ পিএম, ০৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯

হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ইয়াবা বহনকালে গ্রেফতার তিনজনের মধ্যে দুজনের দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

শনিবার (৭ সেপ্টেম্বর) তাদের ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করা হয়। এ সময় বিমানবন্দর থানায় মাদকদ্রব্য আইনে করা মামলার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য তাদের বিরুদ্ধে সাত দিনের রিমান্ড আবেদন করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা। শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম হাবিবুর রহমান ‍দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

রিমান্ডে যাওয়া আসামি দুজন হলেন- মো. ইয়ামিন ও মো. শরিফুল ইসলাম। অপরদিকে ইয়াবাসহ গ্রেফতার কিশারীকে (১৪) কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন মামলা তদন্তকারী কর্মকর্তা। আবেদনের প্রেক্ষিতে তাকে কিশোর উন্নায়ন কেন্দ্রে পাঠানোর নির্দেশ দেন একই আদালত।

গত শুক্রবার তাদেরকে পৃথক ঘটনায় গ্রেফতার করে বিমানবন্দর আর্মড পুলিশ। বিমানবন্দর আর্মড পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপারেশন্স অ্যান্ড মিডিয়া) আলমগীর হোসেন জানান, শুক্রবার বেলা দেড়টার সময় বিমানবন্দরের অভ্যন্তরীণ টার্মিনালের বহিরাঙ্গন থেকে ইয়াবাসহ এক কিশোরীকে আটক করা হয়। তার দেহ তল্লাশি করে ২০টি এয়ার টাইট প্যাকেটে এক হাজার পিস ইয়াবা পাওয়া যায়।

অন্য ঘটনায় দুপুর ২টার দিকে মো. ইয়ামিনকে বিমানবন্দরের অভ্যন্তরীণ টার্মিনালের বহিরাঙ্গনের পুকুর পাড় থেকে আটক করা হয়। তার দেহ তল্লাশি করে চার হাজার পিস ইয়াবা পাওয়া যায়।

একইদিন বিকেল ৩টার দিকে মো. শরিফুল ইসলাম নামে বিমানবন্দরের অভ্যন্তরীণ টার্মিনাল সংলগ্ন পাবলিক টয়লেটের কাছ থেকে একজনকে আটক করা হয়। তার দেহ তল্লাশি করে তিন হাজার পিস ইয়াবা পাওয়া যায়।

আটকদের মধ্যে ইয়ামিনের নামে ডিএমপির যাত্রাবাড়ী থানায় ইয়াবার আরও একটি মামলা আছে। আটক কিশোরীর বাড়ি কুড়িগ্রাম জেলার নাগেশ্বরী থানার বেপারী হাটে এবং ইয়ামিন বরিশাল জেলার হিজলা থানার শ্রীপুর গ্রামের আব্দুল মজিদ তালুকদারের ছেলে। আটক শরিফ ঢাকা মেট্রোর শ্যামপুর থানার গেন্ডারিয়ার দক্ষিণ মীর হাজীরবাগ এলাকার মৃত তবারক হাওলাদারের ছেলে।

জিজ্ঞাসাবাদে আটকরা জানায়, তারা মূলত বাহক। এই মালামাল মূল মালিকের প্রতিনিধি তাদের কাছ থেকে সংগ্রহ করার কথা ছিল। আটক ইয়াবার আনুমানিক বাজারমূল্য ৪০ লাখ টাকা।

জেএ/এমএসএইচ