হোসেনি দালানে বোমা হামলা : পৃথক চার্জশিট ২৪ সেপ্টেম্বর

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:০০ পিএম, ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯

রাজধানীর পুরান ঢাকার হোসেনি দালানে পবিত্র আশুরার তাজিয়া মিছিলের প্রস্তুতির সময় বোমা হামলা মামলার শিশু আসামি মাসুদ রানার বিরুদ্ধে পৃথক চার্জশিট দাখিলের জন্য আগামী ২৪ সেপ্টেম্বর দিন ধার্য করেছেন ট্রাইব্যুনাল।

আজ সোমবার (৯ সেপ্টেম্বর) সন্ত্রাস দমন ট্রাইব্যুনালের ভারপ্রাপ্ত বিচারক মনির কামাল তদন্তকারী কর্মকর্তার আবেদন মঞ্জুর করে এ দিন ধার্য করেন। এছাড়া মামলার সাক্ষ্যগ্রহণের জন্যও একই দিন ধার্য রয়েছে। ট্রাইব্যুনালের পেশকার রুহুল আমীন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এদিন আসামি মাসুদ রানার বিরুদ্ধে শিশু আইনে পৃথক চার্জশিট দাখিলের জন্য দিন ধার্য ছিল। কিন্তু মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ডিবি পুলিশের পরিদর্শক শফি উদ্দিন চার্জশিট দাখিল না করে ১৫ দিনের সময়ের আবেদন করেন।

সময়ের আবেদনে তিনি উল্লেখ করেন, চলতি বছরের ৩১ জুলাই আসামি মাসুদ রানা বিরুদ্ধে শিশু আইনে পৃথক চার্জশিট দাখিলের আদেশ প্রদান করেন আদালত। সম্প্রতি গুলিস্তান, মালিবাগ, পল্টন ও খামারবাড়ী মোড়ে বোমা হামলার ঘটনা ঘটে। এ নিয়ে অনুসন্ধানের কাজ ও পবিত্র আশুরা উপলক্ষে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষার ডিউটি থাকায় আসামির বিরুদ্ধে পৃথক চার্জশিট দাখিল করা সম্ভব হয়নি। তাই আরও ১৫ দিনের সময়ের আবেদন করছি।

মামলার নথি থেকে জানা যায়, ২০১৫ সালের ২৩ অক্টোবর তাজিয়া মিছিলের প্রস্তুতিকালে জেএমবির সদস্যরা হোসেনি দালানে গ্রেনেড হামলা চালায়। এতে দু'জন নিহত ও শতাধিক আহত হন। পরে ওই ঘটনায় চকবাজার থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) জালাল উদ্দিন সন্ত্রাসবিরোধী আইনে একটি মামলা দায়ের করেন।

২০১৬ সালের ১৮ অক্টোবর ঢাকা মহানগর হাকিম আব্দুল্লাহ আল মাসুদের আদালতে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের পরিদর্শক শফি উদ্দিন ১০ আসামির বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করেন। চার্জশিটের সবাই জেএমবির সদস্য বলে উল্লেখ করা হয়।

২০১৭ সালের ৩১ মে ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কামরুল হোসেন মোল্লা আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন। একই সঙ্গে মামলাটি অষ্টম অতিরিক্ত আদালতে বদলি করা হয়। গত বছরের ১৪ মে মামলাটি অষ্টম অতিরিক্ত আদালত থেকে সন্ত্রাস দমন ট্রাইব্যুনালে বদলি করা হয়। বর্তমানে সন্ত্রাস দমন ট্রাইব্যুনালে মামলাটির সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য দিন ধার্য রয়েছে।

মামলার আসামিদের মধ্যে কবির হোসেন, জাহিদ হাসান, রুবেল ইসলাম, আবু সাঈদ, আরমান ও মাসুদ রানা কারাগারে রয়েছেন। এছাড়া হাফেজ আহসান উল্লাহ মাসুদ, শাহ জালাল, ওমর ফারুক ও চাঁন মিয়া জামিনে আছেন।

জেএ/আরএস/এমকেএইচ