অন্যের স্ত্রীর সঙ্গে সম্পর্ক, আদালতে কায়সার কামাল

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০২:৪০ পিএম, ০৫ ডিসেম্বর ২০১৯

‘অনুমতি ছাড়া’ অন্যের স্ত্রীর সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপনের অভিযোগে আটক বিএনপির আইন বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার কায়সার কামালের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। 

বৃহস্পতিবার ওই মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে পাঠানো হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করে পুলিশ। মামলাটি করেন ব্যারিস্টার আতিকুর রহমান নামে অপর এক আইনজীবী। কলাবাগান থানার মামলা নম্বর-৩।

এ বিষয়ে কলাবাগান থানার ইন্সপেক্টর (অপারেশন) ঠাকুর দাস বলেন, আতিকুর রহমান প্রতারণার অভিযোগ এনে ব্যারিস্টার কায়সার কামালের নামে ফৌজদারি কার্যবিধি ৪২০ ধারায় একটি মামলা করেন। এ মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়, ‘আতিকুর রহমানের অনুমতি ছাড়া তার স্ত্রীর সঙ্গে যোগাযোগ, গাড়িতে নিয়ে ঘোরা তথা সম্পর্ক বজায় রেখেছেন কায়সার কামাল। এ সম্পর্কের ফলে তিনি নিজে এবং নিজের সংসার জীবনে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন।’ এ মর্মে কায়সার কামালের বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ আনেন আতিকুর রহমান।

প্রসঙ্গত, নিজের এক জুনিয়র আইনজীবীর স্ত্রীর সঙ্গে ‘পরকীয়ার’ জেরে বিএনপির আইন বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার কায়সার কামালসহ তিনজনকে গতকাল বুধবার রাতে কলাবাগান থানায় পুলিশ হেফাজতে নেয়া হয়। কায়সার কামালসহ অন্য দুজন সড়কের পাশে দাঁড়িয়ে ঝগড়া (কথাকাটাকাটি) করছিলেন বলে জানা যায়।

নারীঘটিত ওই ঘটনার বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বুধবার (৪ ডিসেম্বর) সন্ধ্যার দিকে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতাল এলাকা থেকে তাদের থানায় নেয়া হয়।

কলাবাগান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) পরিতোষ চন্দ্র ওই সময় জানান, জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাদের আটক করা হয়েছে। তবে এ ঘটনায় কোনো মামলা হয়নি। 

এদিকে পুলিশের ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা জাগো নিউজকে জানান, পরকীয়ার জেরে সুপ্রিম কোর্টের একজন আইনজীবীকে আটক করা হয়েছে। তবে তিনি কোনো রাজনৈতিক নেতা কি-না, তা আমাদের জানা নেই।

ঊর্ধ্বতন ওই কর্মকর্তা আরও জানান, ব্যারিস্টার এম আতিকুর রহমানের বাসায় যাওয়া-আসার সুবাদে কায়সার কামালের সঙ্গে তার স্ত্রীর পরিচয় হয়। তার সূত্র ধরে কায়সার কামাল আতিকের স্ত্রীকে নিয়মিত উপহার পাঠাতেন। ইতোমধ্যে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে সন্দেহ দানা বাধে। কিন্তু এর কোনো সুরাহা না পেয়ে ব্যারিস্টার আতিক চুপ করে থাকেন। এরপর সিনিয়র আইনজীবী কায়সার কামাল ও তার স্ত্রীর সঙ্গে একটি অনৈতিক সম্পর্ক রয়েছে- সেটি তিনি টের পান।

ওই কর্মকর্তা জানান, এরই ধারাবাহিকতায় বুধবার তাদের (আতিকের স্ত্রী ও কায়সার কামাল) দেখা করার দিন ছিল। এমন তথ্য জানতে পেরে ব্যারিস্টার এম আতিকুর রহমান স্ত্রী ও কায়সার কামালকে ফলো করতে থাকেন। একপর্যায়ে স্ত্রীর অফিসের সামনে কায়সার কামাল উপস্থিত হন। এ সময় দুজনের সামনে উপস্থিত হয়ে স্ত্রী ও কায়সারের সঙ্গে বাগবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন আতিক। 

পরকীয়া নিয়ে কায়সার কামাল ও স্ত্রীর সঙ্গে কথাকাটাকাটির একপর্যায়ে সেখানে মানুষ জড়ো হতে থাকে। দুই আইনজীবী ও নারীর মধ্যে কথাকাটাকাটিতে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। এতে সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। মানুষের জটলা দেখে কলাবাগান থানা পুলিশ তাদের তিনজনকে থানায় নিয়ে আসেন- জানান তিনি।

জানা গেছে, ব্যারিস্টার কায়সার কামাল প্রথম স্ত্রীকে আগেই ডির্ভোস দেন। এছাড়া লন্ডনে ব্যারিস্টারি পড়ার সময় এক নারীর সঙ্গে তার সম্পর্ক হওয়ারও গুঞ্জন আছে আইনজীবী মহলে।

এআর/এমএআর/পিআর