পাবনার বালিশকাণ্ডে প্রকৌশলী মাসুদুলসহ ১৩ জন কারাগারে

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:৩৭ পিএম, ১২ ডিসেম্বর ২০১৯

রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণে বালিশসহ অন্যান্য কেনাকাটায় ১৬৯ কোটি টাকার দুর্নীতির পৃথক তিন মামলায় পাবনা গণপূর্ত বিভাগের সাবেক নির্বাহী প্রকৌশলী মাসুদুল আলমসহ ১৩ জনের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার (১২ ডিসেম্বর) ঢাকা মহানগর হাকিম নিভানা খায়ের জেসি শুনানি শেষে এ আদেশ দেন।

আজ আসামিদের আদালতে হাজির করে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা। অপরদিকে, তাদের আইনজীবীরা জামিনের আবেদন করেন। উভয় পক্ষের শুনানি শেষে আদালত তাদের জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

আজ দুপুরে রাজধানীর সেগুনবাগিচা এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

গ্রেফতাররা হলেন-পাবনা গণপূর্ত বিভাগের সাবেক নির্বাহী প্রকৌশলী মাসুদুল আলম, উপ-সহকারী প্রকৌশলী মো. জাহিদুল কবির, মো. শফিকুল ইসলাম, সুমন কুমার নন্দী, মোহাম্মদ আবু সাঈদ, মো. রওশন আলী, উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী মোহাম্মদ মোস্তফা কামাল, আহমেদ সাজ্জাদ খান, মোহাম্মদ তাহাজ্জুদ হোসেন, সহকারী প্রকৌশলী মো. তারেক খান, মো. আমিনুল ইসলাম, ঠিকাদার আসিফ হোসেন ও শাহাদাত হোসেন।

এর আগে রূপপুর পারমাণবিক বিদ‌্যুৎ প্রকল্পে দুর্নীতির অভিযোগে পৃথক চারটি মামলা দায়ের করে দুদক। চার মামলায় মোট ৩১ কোটি ২৫ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ আনা হয়েছে।

জেএ/এসআর/পিআর