গাছ কেটে টাকা আত্মসাৎ : দুদককে তদন্তের নির্দেশ হাইকোর্টের

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৪:০২ পিএম, ২৮ জানুয়ারি ২০২০

বরিশালের মাহিলাড়া ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে গাছ কেটে টাকা আত্মসাৎ করার যে অভিযোগ রয়েছে তা তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) চেয়ারম্যানকে আগামী ছয় মাসের মধ্যে তদন্তের জন্য বলা হয়েছে। আদেশের বিষয়টি জাগো নিউজকে নিশ্চিত করেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক।

মুক্তিযোদ্ধা ও মালিলাড়া পানি ব্যবস্থাপনা সমবায় সমিতি লিমিটেডের সভাপতি মো. আনোয়ার হোসেনের করা এক রিট আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে মঙ্গলবার (২৮ জানুয়ারি) হাইকোর্টের বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কে এম হাফিজুল আলমের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে আজ রাষ্ট্রপক্ষের শুনানিতে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক ও সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল হেলেনা বেগম চায়না। দুদকের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী চৌধুরী নাসিমা, আবেদনকারীর পক্ষে ছিলেন আইনজীবী মো. তৌফিকুল ইসলাম।

অভিযোগ রয়েছে বরিশাল জেলার গৌরনদী উপজেলার মাহিলাড়া ইউনিয়নের এফ. সি. ডি প্রকল্পের মাহিলাড়া-ছয়গ্রাম ও বিলগ্রাম-জঙ্গলপট্টি এলাকার ৪ কিলোমিটার বেড়িবাঁধ সড়কের দুপাশের বিভিন্ন প্রজাতির ৩৮০টি গাছ মাহিলাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সৈকত গুহ পিকলু কাউকে না জানিয়ে তার লোকজন দিয়ে কেটে তা বিক্রি করে টাকা আত্মসাৎ করেছেন।

এ বিষয়ে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) তদন্ত করে সত্যতা পান। বিষয়টি অধিকতর তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য রিট করেন। তারও আগে বাদী দুদক চেয়ারম্যানের কাছে ২০ জানুয়ারি বিষয়টি তদন্ত করার আবেদন করেন। হাইকোর্ট রিট আবেদন নিষ্পত্তি করে আগামী ছয় মাসের মধ্যে বাদীর আবেদনটি তদন্ত করে ব্যবস্থা নিতে নির্দেশনা দেন।

এফএইচ/এনএফ/এমএস