টিসিবির পণ্য সারাদেশে বিক্রি চেয়ে রিট, সময় নিল মন্ত্রণালয়

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:৪৯ পিএম, ০১ জুন ২০২০

 

সরকারি বিক্রয়কারী সংস্থা ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) ন্যায্যমূল্যের পণ্য সারাদেশে বিক্রির জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য রিট দায়ের করা হয়। রিটের ওপর হাইকোর্টে সোমবার ভার্চুয়াল শুনানি অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুনানিতে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের পক্ষে সময় চাওয়া হয়েছে।

বিষয়টি জাগো নিউজকে নিশ্চিত করেন রিটকারী আইনজীবী হুমায়ুন কবির পল্লব নিজেই। তিনি বলেন, করোনাভাইরাসের কারণে টিসিবির ১০ টাকা দামের চাল ও অন্যান্য পণ্য উপজেলা পর্যায়ে এবং পৌর এলাকা পর্যন্ত সাধারণ মানুষের মধ্যে বিক্রির জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশনা চেয়ে রিট আবেদনের ওপর শুনানি শুরু হয়েছে। সোমবার রিটের ওপর হাইকোর্টের ভার্চুয়াল শুনানিতে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে সময় নিয়েছেন মন্ত্রণালয়ের আইনজীবী ব্যারিস্টার তাপস কান্তি বল।

সোমবার (১ জুন) হাইকোর্টের বিচারপতি জে বি এম হাসানের বেঞ্চে ভার্চুয়াল মাধ্যমে শুনানি শুরু হয়। পরে এ বিষয়ে আরও বিস্তারিত শুনানির জন্যে আগামী বুধবার (৩ জুন) ধার্য করা হয়।

আদালতে রিটের পক্ষে ভার্চুয়াল শুনানিতে অংশগ্রহণ করেন রিটকারী আইনজীবী ব্যারিস্টার মো. হুমায়ন কবির পল্লব। অন্যদিকে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের পক্ষ সময় নিয়েছেন মন্ত্রণালয়ের আইনজীবী ব্যারিস্টার তাপস কান্তি বল। রাষ্ট্রপক্ষে শুনানিতে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল সমরেন্দ্রনাথ বিশ্বাস।

জনস্বার্থে গত ১৬ মে হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট বেঞ্চে ই-মেইলের মাধ্যমে ‘ল অ্যান্ড লাইফ ফাউন্ডেশন’-এর পক্ষে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার মো. হুমায়ন কবির পল্লব রিটটি দায়ের করেন।

রিটে প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের মুখ্য সচিব, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব ও টিসিবির চেয়ারম্যানকে বিবাদী করা হয়।

গত ৩০ এপ্রিল এ বিষয়ে পদক্ষেপ নেয়ার জন্যে সংশ্লিষ্টদের প্রতি আইনি নোটিশ পাঠানো হয়। নোটিশ পাওয়ার নির্ধারিত কার্যদিবসের মধ্যে এ বিষয়ে সংশ্লিষ্টরা কোনো পদক্ষেপ না নেয়ায় রিটটি দায়ের করেন আইনজীবী।

রিটের বিষয়ে আইনজীবী বলেন, টিসিবির পণ্য বিক্রি শুধু সিটি করপোরেশন এবং পৌরসভার মধ্যে সীমাবদ্ধ না রেখে উপজেলা পর্যায়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে বিক্রির ব্যবস্থার নির্দেশনা চাওয়া হয়েছে।

এফএইচ/এমএআর/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]