রমনা পার্ক কেন খুলে দেয়া হচ্ছে না, জানতে চান হাইকোর্ট

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০২:১৫ পিএম, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২০

করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) প্রাদুর্ভাবের কারণে বন্ধ থাকা রাজধানীর রমনা পার্ক জনসাধারণের জন্য কেন উন্মুক্ত করে দেয়া হচ্ছে না, তা জানাতে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীকে মৌখিক নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। এ বিষয়ে পরবর্তী শুনানির জন্য আগামী বৃহস্পতিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) দিন ঠিক করেছেন আদালত।

আদেশের বিষয়টি নিশ্চিত করেন আইনজীবী ইউনুছ আলী আকন্দ।

রিট আবেদনের ওপর শুনানি নিয়ে বৃহস্পতিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) হাইকোর্টের বিচারপতি জে বি এম হাসান ও বিচারপতি মো. খায়রুল আলমের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে আজ রিটের পক্ষে শুনানি করেন রিটকারী আইনজীবী অ্যাডভোকেট ড. ইউনুছ আলী আকন্দ। রাষ্টপক্ষের শুনানিতে ছিলেন ডেপুর্টি অ্যার্টনি জেনারেল নুর উস সাদিক।

এর আগে গত ৮ সেপ্টেম্বর হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট ইউনুছ আলী আকন্দ রিটটি করেন।

রিটে করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) কারণে বন্ধ থাকা রাজধানীর রমনা পার্ক জনসাধারণের জন্য ২৪ ঘণ্টার মধ্যে উন্মুক্ত করে দেয়ার নির্দেশনা চাওয়া হয়। একই সঙ্গে, রমনা পার্ক বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না-এই মর্মে রুল জারির আরজি জানান। রিটে গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের সচিবসহ সংশ্লিষ্টদের বিবাদী করা হয়েছে।

রিটকারী আইনজীবী জানান, ১৬১০ সালে এটি সৃষ্টির পর থেকে কখনো বন্ধ হয়নি। রমনা পার্ক সবসময় জনসাধারণের জন্য উন্মুক্ত। কিন্তু মহামারি করোনাভাইরাসকে কেন্দ্র করে রমনা পার্ক বন্ধ রাখা হয়। বর্তমানে করোনা সংক্রমণ কমে যাওয়ায় অফিস-আদালতসহ সবকিছু খুলে দেয়া হয়েছে। কিন্তু রমনা পার্ক এখনো বন্ধ রাখা হয়েছে। এতে জনগণের চলাফেরার অধিকার লঙ্ঘিত হচ্ছে। জনগণের চলাফেরার স্বাধীনতার কথা সংবিধানের ৩৬ অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে। রমনা পার্ক বন্ধ রাখার ফলে জনগণের চলাফেরা করার অধিকার ক্ষুণ্ন করা হচ্ছে। শত শত ডায়াবেটিস রোগী এ পার্কে হাঁটা চলাফেরা করতে না পারায় অনেকে মৃত্যুর মুখে ঝুঁকে পড়ছেন। তাই ২৪ ঘণ্টার মধ্যে জনগণের জন্য পার্কটি খুলে দেয়ার নির্দেশনা চেয়েছি।’

তিনি আরও বলেন, গত ৬ সেপ্টেম্বর রমনা পার্ক খুলে দিতে গণপূর্ত সচিবকে লিগ্যাল নোটিশ পাঠিয়েছিলাম। নোটিশের জবাব না পেয়ে এই রিট আবেদন করা হয়।

এফএইচ/এসআর/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]