৪৪ বছরের চাকরিজীবন শেষে বিদায় নিলেন ‘নিমেশ দা’

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১:৪১ এএম, ০১ অক্টোবর ২০২০

দীর্ঘ প্রায় ৪৪ বছরের চাকরিজীবন শেষে দেশের সর্বোচ্চ আদালত সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি থেকে অবসরে গেলেন বারের সুপারিন্টেন্ডেন্ট (তত্ত্বাবধায়ক) নিমেশ চন্দ্র দাশ।

সুপ্রিম কোর্ট বারের যাত্রার প্রায় শুরু থেকেই সকলের আস্থার প্রতীক ছিলেন তিনি। তাকে আইনজীবী সমিতির সবাই ভালোবেসে ‘নিমেশ দা’ বলেই ডাকতেন।

শেষ কর্মদিবসে বুধবার (৩০ সেপ্টেম্বর) সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি মিলনায়তনে তাকে বিদায় সংবর্ধনা দেয়া হয়। সুপ্রিম কোর্ট বারের পক্ষ থেকে আয়োজন করা হয় এ সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের।

jagonews24

অনুষ্ঠানে নিমেশ চন্দ্র দাশ বলেন, সমিতির চাকরিবিধি অনুযায়ী আমি দীর্ঘ ৪৪ বছর এই সমিতিতে কাজ করেছি। এতদিনে সমিতির প্রতিটি ইট-কণার সঙ্গে আমার স্মৃতিবিজড়িত আছে। এই সমিতিকে মনে করতাম আমার পরিবারের একটি অংশ। এই সমিতি আমার হৃদয়ে গেঁথে আছে।

তিনি বলেন, এ যাবৎ প্রায় ৩০ জন সভাপতি এবং ৩৫ জন সম্পাদকের সঙ্গে কাজ করেছি। তাদের অনেকেই একাধিকবার দায়িত্বপালন করেছেন। সমিতি আমাকে অনেক কিছুই দিয়েছে, সম্মান করেছে, স্নেহ করেছে, ভালোবেসেছে।

নিমেশ চন্দ্র বলেন, আইনজীবী সমিতি থেকে পাওয়া বেতন দিয়ে আমার ভাইবোন-ছেলেমেয়েকে প্রতিষ্ঠিত করার চেষ্টা করেছি। দীর্ঘদিনের চাকরিজীবনের এই অঙ্গনের আলো-বাতাস এখন আমার জীবনের অবিচ্ছেদ্য অংশে পরিণত হয়েছে।

jagonews24

বক্তব্য শেষে বিদায় সংবর্ধনা আয়োজনের জন্য তিনি সমিতির সবার প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। বিদায় সংবর্ধনা ঘিরে বার নেতৃবৃন্দদের মধ্যে এক আবেগঘন পরিবেশের সৃষ্টি হয়।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি সিনিয়র অ্যাডভোকেট এএম আমিন উদ্দিন, সম্পাদক ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল, সাবেক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মো. মোমতাজ উদ্দিন আহমেদ মেহেদী, বারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

এফএইচ/বিএ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]