কোটি টাকা দিলেও পা হারানোর ক্ষতি পূরণ হবে না: রাসেল

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৪:৫৩ পিএম, ০১ অক্টোবর ২০২০

রাজধানীর মেয়র মোহাম্মদ হানিফ ফ্লাইওভারে গ্রিনলাইন পরিবহনের ধাক্কায় প্রাইভেটকার চালক রাসেল সরকারের (২৩) বাম পা বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। এ ঘটনায় তাকে ২০ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে বৃহস্পতিবার (১ অক্টোবর) গ্রিনলাইন কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিয়ে রায় ঘোষণা করেছেন হাইকোর্ট।

রায়ের পর এক প্রতিক্রিয়ায় রাসেল সরকার সাংবাদিকদের বলেন, ‘যা হারিয়েছি তা কি আর শত কোটি টাকা দিলেও ফিরে আসবে, শত কোটি টাকা দিলেও কি পা হারানোর ক্ষতি পূরণ হবে? তবে আমি আদালতের রায় মেনে নিয়েছি। রায়ে আদালতের প্রতি কৃতজ্ঞ ও সন্তুষ্ট। ’

তিনি বলেন, ‘যা হওয়ার তা হয়েই গেছে, ক্ষতিপূরণ দিয়ে কী হবে? তবে, এই টাকা পেলে আমি ব্যাংকে ডিপোজিট করার ইচ্ছা আছে। সেখান থেকে যদি কিছু আয় হয় তাহলে সেটা দিয়ে চলবো।’

এখন কীভাবে চলছেন, জানতে চাইলে রাসেল বলেন, ‘এখন তো আমার ব্যক্তিগত কোনো আয় নাই। সারাদিন ঘরেই বসে থাকি। তাই হাতে কোনো টাকা-পয়সাও নেই। স্ত্রী ছেলেমেয়ে পড়ায় এবং দরজির কাজ করে। স্ত্রীর আয়-রোজগারে চলছি।’

jagonews24

রায়ে আদালত বলেছেন, তিন মাসের মধ্যে একসঙ্গে ২০ লাখ টাকা দিতে গ্রিনলাইনকে নির্দেশ দেয়া হলো। ওই অর্থ দিয়ে পরবর্তী ১৫ দিনের মধ্যে নির্দেশ বাস্তবায়ন বিষয়ে সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেলের কাছে প্রতিবেদন জমা দিবেন গ্রিনলাইন কর্তৃপক্ষ। আর হাতে টাকা পাওয়ার এক সপ্তাহ পরে রাসেল সরকার ব্যাংকের হিসাব জমা দেবেন।

২০১৮ সালের ২৮ এপ্রিল মেয়র মো. হানিফ ফ্লাইওভারে গ্রিনলাইন পরিবহনের ধাক্কায় প্রাইভেটকার চালক রাসেল সরকারের (২৩) বাম পা বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। এ ঘটনায় গাইবান্ধার একই এলাকার বাসিন্দা জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত মহিলা আসনের সরকার দলীয় সাবেক সংসদ সদস্য (বর্তমানে কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক) অ্যাডভোকেট উম্মে কুলসুম স্মৃতি হাইকোর্টে রিট করেন।

হাইকোর্ট ওই বছরের ১৪ মে এ বিষয়ে রুল জারি করেন। রুলে কেন রাসেলকে এক কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে নির্দেশ দেয়া হবে না তা জানতে চাওয়া হয়। পরে আবেদনের শুনানি নিয়ে হাইকোর্ট এক আদেশে রাসেল সরকারকে ৫০ লাখ টাকা দিতে নির্দেশ দেন। প্রতিমাসে পাঁচ লাখ টাকা করে দিতে বলা হয়। এই নির্দেশের পর এ পর্যন্ত সাড়ে ১৩ লাখ টাকা দিয়েছে গ্রিনলাইন কর্তৃপক্ষ।

গত ১২ মার্চ হাইকোর্ট এক আদেশে দুই সপ্তাহের মধ্যে রাসেলকে ৫০ লাখ টাকা দিতে গ্রিনলাইন পরিবহন কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেন। একইসঙ্গে প্রয়োজন হলে তার পায়ে অস্ত্রোপচার এবং কাটা যাওয়া বাম পায়ে সর্বাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে কৃত্রিম পা লাগানোর খরচ দিতে পরিবহন কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেয়া হয়। এর অগ্রগতি হলফনামা আকারে ৩১ মার্চের মধ্যে আদালতে দাখিল করতেও বলা হয়। তবে হাইকোর্টের ১২ মার্চের আদেশের বিরুদ্ধে গ্রিনলাইন কর্তৃপক্ষ আপিল বিভাগ আবেদন করে, যা ৩১ মার্চ খারিজ হয়। ফলে হাইকোর্টের আদেশ বহাল থাকে।

এফএইচ/এমএসএইচ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]