মাকে হত্যা : সৎ ছেলের দায় স্বীকার, ৫ জন কারাগারে

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:৫৫ পিএম, ৩০ নভেম্বর ২০২০
প্রতীকী ছবি

রাজধানীর কাফরুলে সীমা বেগম নামে এক নারীকে কুপিয়ে ও পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় স্বীকারোক্তিমূলিক জবানবন্দি দিয়েছেন সৎ ছেলে এসএম আশিকুর রহমান নাহিদ। অপরদিকে পাঁচজনকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত।

সোমবার (৩০ নভেম্বর) মামলার তদন্ত কর্মকর্তা কাফরুল থানার এসআই সারিফুজ্জামান আসামিদের আদালতে হাজির করেন। এদিন আসামি নাহিদ স্বেচ্ছায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিতে সম্মত হওয়ায় তা রেকর্ড এবং অপর পাঁচ আসামিকে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন তদন্ত কর্মকর্তা।

আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকা মহানগর হাকিম নিভানা খায়ের জেসী আসামি নাহিদের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি রেকর্ড করেন। এরপর তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেয়া হয়।

একই সঙ্গে অপর পাঁচ আসামিকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন আদালত। তারা হলেন- জাকিয়া সুলতানা আইরিন, আসেক উল্লা, রোকেয়া বেগম, শাহজাহান শিকদার ও সাকিব।

এর আগে সোমবার উত্তরখান থানা এলাকা থেকে নাহিদকে এবং কাফরুলের ইমাননগর ও আশপাশের এলাকায় অভিযান চালিয়ে অন্য আসামিদের গ্রেফতার করে পুলিশ।

মামলা সূত্রে জানা যায়, রোববার বেলা ১১টার দিকে কাফরুল থানার পূর্ব বাইশটেক এলাকার একটি বাসা থেকে সীমার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। তাকে প্রথমে উপর্যুপরি ছুরি দিয়ে আঘাত করে হত্যা করা হয়। পরে তার মরদেহ আগুনে পোড়ানো হয়। এ ঘটনায় সীমার বড় ভাই শরীফ মোহাম্মদ বাদী হয়ে কাফরুল থানায় হত্যা মামলা করেন।

জেএ/বিএ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]