৮ বছর আগের নিয়োগ পরীক্ষার ফল ৭ দিনে প্রকাশের নির্দেশ ওয়াসাকে

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:৫২ পিএম, ০৪ মে ২০২১

২০১৩ সালের জুনে বিজ্ঞপ্তির আলোকে অনুষ্ঠিত নিয়োগ পরীক্ষার ফল আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে প্রকাশ অথবা অন্য কোনো সিদ্ধান্ত নিতে ঢাকা ওয়াসাকে নির্দেশ দিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ। এ বিষয়ে সংস্থাটিকে আগামী ২৯ মের মধ্যে অগ্রগতি প্রতিবেদন দাখিল করতে হবে।

নিয়োগ পরীক্ষার ফলাফল ৮ বছরেও প্রকাশ না করায় অসন্তোষ প্রকাশ করে মঙ্গলবার (৪ মে) প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে ছয় সদস্যের বিচারপতির আপিল বিভাগের ভার্চুয়াল বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আদালতে আজ ঢাকা ওয়াসার পক্ষে আইনজীবী ছিলেন ব্যারিস্টার এএম মাসুম। নিয়োগপ্রার্থীদের পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট সাঈদ আহমেদ রাজা।

ওয়াসার বিভিন্ন পদে নিয়োগের জন্য ২০১৩ সালের ১১ জুন দৈনিক পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। এর আলোকে লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয় ওই বছরের ২৭ ডিসেম্বর। পরের বছর ২০ জুলাই লিখিত পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হয়। এরপর ওই বছরের ২৭ জুলাই থেকে মৌখিক পরীক্ষা নেয় ওয়াসা।

কিন্তু দীর্ঘদিনেও ফল প্রকাশ না করায় লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণরা ফল প্রকাশের জন্য বিভিন্ন সময়ে ওয়াসাকে ৫টি আবেদন দেন। এরপরও ফল প্রকাশ না করায় গত বছরের ১৬ আগস্ট ওয়াসাকে আইনি নোটিশ পাঠানো হয়। কিন্তু এরপরও ফল প্রকাশ না করেনি সংস্থাটি। এরপর হাইকোর্টে রিট করেন জাহিদুর রহমানসহ বেশ কয়েকজন নিয়োগপ্রার্থী।

হাইকোর্ট ঢাকা ওয়াসাকে দ্রুত ফল প্রকাশের নির্দেশ দেন। এই আদেশের বিরুদ্ধে আপিল বিভাগের চেম্বারজজ আদালতে আবেদন করে ওয়াসা। এ আবেদনে হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত করে দেন আদালত। এরই ধারাবাহিকতায় আজ আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চে ঢাকা ওয়াসার আবেদনের ওপর শুনানি হয়।

শুনানিতে ঢাকা ওয়াসার আইনজীবী আদালতকে জানান, ওই নিয়োগ প্রক্রিয়ায় দুর্নীতি হয়েছে। এ কারণে ফল প্রকাশ করা হয়নি।

এ সময় আদালত বলেন, তাহলে এই দুর্নীতির তথ্য আগে কেন আদালতকে বলেননি? হয় ফল প্রকাশ করবেন, না হয় বাতিল করবেন। কিন্তু তা না করে এভাবে কাউকে ঝুলিয়ে রাখতে পারেন না। আদালত উভয়পক্ষের শুনানি নিয়ে এক সপ্তাহের মধ্যে ফল প্রকাশ অথবা অন্য কোনো সিদ্ধান্ত নিতে নির্দেশ দেন।

এফএইচ/এমএসএইচ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]