ফোনালাপ ফাঁসকারীদের আইনের আওতায় আনতে লিগ্যাল নোটিশ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:০০ পিএম, ০৫ মে ২০২১ | আপডেট: ০৭:০৩ পিএম, ০৫ মে ২০২১

অনুমতি ছাড়া মোবাইলে ব্যক্তিগত কথোপকথনের রেকর্ড সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়ানো ব্যক্তিদের আইনের আওতায় আনতে লিগ্যাল নোটিশ পাঠানো হয়েছে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী এবং বিটিআরসির চেয়ারম্যানকে বিবাদী করে মেইল ও কুরিয়ারে বুধবার (৫ মে) এই নোটিশ পাঠানো হয়।

ন্যাশনাল লইয়ার্স কাউন্সিলের চেয়ারম্যান ও সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট এস এম জুলফিকার আলী জুনু এই নোটিশ পাঠান। নোটিশ পাঠানোর বিষয়টি জাগো নিউজকে তিনি নিজেই নিশ্চিত করেন।

নোটিশ পাওয়ার সাতদিনের মধ্যে তদন্তাধীন মামলার বিষয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে কল্পকাহীনি ছড়ানো ব্যক্তি ও ফোনকলের কথোপকথন রেকর্ড করে ছড়ানো ব্যক্তিদের আইনের আওতায় আনার দাবি জানানো হয়। অন্যথায় হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় জনস্বার্থে রিট আবেদন দাখিল করে যথাযথ নির্দেশনা চাওয়া হবে।

নোটিশ বলা হয়, সম্প্রতি পুলিশ কর্তৃক আলোচিত আত্মহত্যা প্ররোচনা (মুনিয়ার) মামলার তদন্ত চলাকালে বাদী, ভিকটিম ও আসামি বসুন্ধরা গ্রুপের এমডি সায়েম সোবহান আনভীরকে জড়িয়ে কিছু সংবাদমাধ্যমে কল্পকাহিনী সম্বলিত নিউজ ছাপিয়ে তা ছড়ানো হয়। এছাড়া বিভিন্ন ব্যক্তির ফোনকলের কথোপকথন রেকর্ড করে কে বা কারা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে জনমনে বিভ্রান্তির সৃষ্টি ও মামলার তদন্তের গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে প্রভাবিত করার চেষ্টা চালানো হয়।

নোটিশ আরও বলা হয়, মামলার তদন্তাধীন বিষয়ে কাল্পনিক সংবাদ পরিবেশন ও ব্যক্তিগত মোবাইলের কথোপকথন অগোচরে রেকর্ড করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে মানহানি করা সরাসরি দেশের প্রচলিত আইনে শাস্তিযোগ্য অপরাধ ও সাংবিধানিক অধিকারে হস্তক্ষেপের সামিল।

এফএইচ/জেডএইচ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]