গাঙচিল বাহিনীর সদস্য ‘ভাগিনা নাঈম’ রিমান্ডে

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৪:৪২ পিএম, ১৬ মে ২০২১ | আপডেট: ০৪:৪৫ পিএম, ১৬ মে ২০২১

রাজধানীর মোহাম্মদপুর এলাকা থেকে বিদেশি পিস্তল ও গুলিসহ গ্রেফতার ‘গাঙচিল বাহিনী’র সদস্য মো. নাঈম ওরফে ‘ভাগিনা নাঈম’র (২৩) দুদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

রোববার (১৬ মে) তাকে ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করে পুলিশ। এ সময় মোহাম্মদপুর থানার অস্ত্র আইনে দায়ের করা মামলার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য তাকে সাতদিনের রিমান্ডে নিতে আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা। শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম বাকী বিল্লাহ দুদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এর আগে শনিবার (১৫ মে) রাতে র‌্যাব-২ এর একটি দল মোহাম্মদপুরের বেড়িবাঁধের আক্কাসনগর এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করেন। গ্রেফতারের সময় তার কাছ থেকে একটি বিদেশি পিস্তল ও দুই রাউন্ড গুলিভর্তি ম্যাগাজিন জব্দ করা হয়।

রোববার র‌্যাব-২ এর সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) এএসপি মো. আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, ‘নাঈম ও তার সহযোগীরা মোহাম্মদপুর থানার ঢাকা উদ্যান এলাকায় কিশোর গ্যাংয়ের নেতৃত্ব দিতেন। এছাড়া আশপাশের এলাকায় চাঁদাবাজি ও ছিনতাইসহ বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড করে আসছিল তারা।’

তিনি বলেন, ‘প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে নাঈম জানান, তার সহযোগীরা দিনে ভূমি দখল ও ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে ভয়ভীতি দেখিয়ে চাঁদা আদায়সহ চাঁদ উদ্যান ও ঢাকা উদ্যান এলাকায় সন্ধ্যার পর থেকে মাদক ব্যবসা, চুরি, ডাকাতিসহ বিভিন্ন অপরাধমূলক কাজ করে আসছিল। নাঈমের বিরুদ্ধে খুন, হত্যাচেষ্টা, ধর্ষণ ও পুলিশের ওপর হামলাসহ ডিএমপির বিভিন্ন থানায় ১৩টি মামলা রয়েছে।’

এএসপি মো. আবদুল্লাহ আল মামুন আরও বলেন, ‘মোহাম্মদপুরের চাঁদ উদ্যান ও ঢাকা উদ্যান হাউজিংসহ আশপাশ এলাকার সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড দ্বারা আধিপত্য বিস্তারকারী অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীর নাম গাঙচিল বাহিনী। এ বাহিনীর সেকেন্ড-ইন-কমান্ড লম্বু মোশারফের ভাগিনা নাঈম। তাকে আইনের আওতায় আনার লক্ষ্যে অনেক দিন ধরে র‌্যাব-২ এর গোয়েন্দা নজরদারি অব্যাহত ছিল।’

জেএ/এমআরআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]