গ্রেফতারে হাসিখুশি থাকলেও আদালতে চিন্তিত ছিলেন হেলেনা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:৫৯ পিএম, ৩০ জুলাই ২০২১

গুলশানের বাসা থেকে গতকাল বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) গ্রেফতারের সময় বেশ হাসিখুশি ছিলেন হেলেনা জাহাঙ্গীর। বাসা থেকে যখন তাকে বের করে নিয়ে যাওয়া হয় তখন তিনি বিভিন্ন গণমাধ্যমের ক্যামেরার দিকে দুই হাত নাড়িয়ে শুভেচ্ছাও জানান। তবে আজ শুক্রবার (৩০ জুলাই) রাতে যখন তাকে আদালতে হাজির করা হয় তখন এবং মামলার শুনানি চলাকালে তিনি বেশ চিন্তিত ছিলেন।

শুনানির একপর্যায়ে ঢাকা মহানগর হাকিম রাজেশ চৌধুরী তার কাছে জানতে চান, ‘আপনার কিছু বলার আছে?’

জবাবে হেলেনা জাহাঙ্গীর বলেন, ‘আমি সরকারের লোক। আমি আওয়ামী লীগের লোক। আমি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ২৫টি দেশ ভ্রমণ করেছি। আমি কোনো অপরাধ করিনি। তার প্রমাণ নেই।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমি বহিষ্কার হইনি। আমি এখনও দলের সঙ্গে আছি।’

এভাবে আধা ঘণ্টার বেশি সময় তিনি আদালতের কাঠগড়ায় দাঁড়িয়ে ছিলেন।

jagonews24

আজ সন্ধ্যা ৭টা ৫০ মিনিটে তাকে ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করা হয়। এরপর শুনানি শেষে গুলশান থানায় করা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় আদালত তার তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

শুক্রবার বিকেলে গুলশান থানায় হেলেনা জাহাঙ্গীরের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দায়ের করা হয়।

এর আগে, বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) রাত ১২টার দিকে গুলশানের ৩৬ নম্বর রোডের ৫ নম্বর বাসায় দীর্ঘ প্রায় চার ঘণ্টা অভিযান শেষে হেলেনা জাহাঙ্গীরকে আটক করে র্যাব।

এ সময় তার বাসা থেকে বিদেশি মদ, অবৈধ ওয়াকিটকি সেট, চাকু, বৈদেশিক মুদ্রা, ক্যাসিনো সরঞ্জাম ও হরিণের চামড়া উদ্ধার করা হয়। আটকের পর তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য র্যাব সদর দফতরে নিয়ে যাওয়া হয়।

এরপর তার মালিকানাধীন জয়যাত্রা আইপি টিভির অফিসে অভিযান চালানো হয়। সেখান থেকে ক্যাঙ্গারুর চামড়া এবং স্যাটেলাইট টিভির বেশকিছু সরঞ্জাম জব্দ করা হয়।

এমএমএ/এমএইচআর/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]