'ঈমানি দায়িত্বে প্রতিবাদ', আদালতে হাবিবুল্লাহর স্বীকারোক্তি

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক চট্টগ্রাম
প্রকাশিত: ০২:২১ এএম, ২৪ অক্টোবর ২০২১

চট্টগ্রাম নগরের জেএমসেন পূজামণ্ডপে হামলার ঘটনায় ডাকসুর সাবেক ভিপি নূরুল হক নুরের সংগঠনের গ্রেফতার আসামি হাবিবুল্লাহ মিজান আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

শনিবার (২৩ অক্টোবর) বিকেলে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট শফি উদ্দিনের আদালতে তিনি জবানবন্দি দেন। জাগো নিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কোতোয়ালি থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) বাবলু কুমার পাল।

তিনি বলেন, ‘পূজামণ্ডপে হামলার ঘটনায় শুক্রবার (২২ অক্টোবর) সাত আসামির প্রত্যেককে আদালত একদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছিলেন। রিমান্ড শেষে তাদের আদালতে পাঠানো হয়। এদের মধ্যে হাবিবুল্লাহ মিজান আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।’

আদালত সূত্রে জানা গেছে, ‘আসামি হাবিবুল্লাহ মিজান স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে মণ্ডপে হামলার ঘটনা পূর্বপরিকল্পিত বলে উল্লেখ করেন। ঈমানি দায়িত্ব থেকে তারা এ প্রতিবাদে অংশ নেন। নিজেরা নেতৃত্বে থেকে মুসল্লিদের একটি অংশকে উত্তেজিত করার মাধ্যমে হামলার ঘটনা ঘটান।’

অন্যদিকে পুলিশ জানায়, জেএমসেন পূজামণ্ডপে হামলার ঘটনায় ৮৪ জনের নামোল্লেখ ও ৫০০ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামি করে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। ওই মামলায় এ পর্যন্ত শতাধিক আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের মধ্যে নয়জন ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুরুর দলের নেতাকর্মী। স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেওয়া আসামি হাবিবুল্লাহ মিজানও তারা দলের কর্মী।

কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ নেজাম উদ্দিন জাগো নিউজকে বলেন, গত বৃহস্পতিবার দিনগত রাতে হামলার ঘটনায় জড়িত দশজনকে গ্রেফতার করা হয়। তাদের মধ্যে নয়জন নুরের দলের নেতাকর্মী। তারা জামায়াত-শিবিরের পরিচয় আড়াল নতুন করে নুরের দলে যোগ দেন। মূলত তারাই মণ্ডপে হামলার হোতা। কুমিল্লার ঘটনার পর তারা একটি গোপন স্থানে মিলিত হয়। সেখানে শুক্রবার জুমার নামাজ শেষে হামলার পরিকল্পনা করা হয়। ঘটনার দিন অভিযুক্তরা মিছিলে জামায়াত-শিবিরের স্লোগান দেন। এরপর মুসল্লিদের একটি অংশকে উত্তেজিত করার মাধ্যমে হামলার ঘটনা ঘটান।

মিজানুর রহমান/এমএএইচ/

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]