খেলার মাঠে প্রবেশ করা সেই যুবকের জামিন

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:৩৯ পিএম, ২৫ নভেম্বর ২০২১
ফাইল ছবি

মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ ও পাকিস্তানের মধ্যকার ম্যাচ চলাকালে হঠাৎ পূর্ব দিকের গ্যালারি থেকে কাঁটাতারের ফেন্সিং (বেড়া) বেয়ে মাঠে ঢুকেপড়া যুবক রাসেলের জামিন আবেদন মঞ্জুর করেছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার (২৫ নভেম্বর) ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে তার আইনজীবী মো. হোসাইন ফরাজী ও মো. রবিউল্লাহ জামিনের আবেদন করেন।

শুনানি শেষে ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মোর্শেদ আল মামুন ভূঁইয়া পাঁচ হাজার টাকা মুচলেকায় রাসেলের জামিন মঞ্জুর করেন।

আসামিপক্ষের আইনজীবী মো. হোসাইন ফরাজী ও মো. রবিউল্লাহ জাগো নিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

গত রোববার (২১ নভেম্বর) রাসেলকে ঢাকার চিফ মেট্রোপলিট ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করে পুলিশ। এরপর ফৌজদারি কার্যবিধি ৫৪ ধারায় তাকে গ্রেফতার দেখিয়ে সাতদিনের রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করা হয়। শুনানি শেষে ঢাকার মেট্রোপলিট ম্যাজিস্ট্রেট মোর্শেদ আল মামুন ভুইয়া রিমান্ড আবেদন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

এর আগে গত শনিবার (২০ আগস্ট) বাংলাদেশ-পাকিস্তান দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি ম্যাচ চলাকালে পাকিস্তানের ইনিংসে ১৩ ওভার পর নর্দার্ন গ্যালারি থেকে কাঁটাতারের বেড়া ডিঙিয়ে মাঠে ঢুকে পড়েন এক দর্শক। সাতজন মাঠকর্মীকে ফাঁকি দিয়ে দৌড়ে ছুটে যান মোস্তাফিজুর রহমানের কাছে। মোস্তাফিজের পায়ের কাছে লুটিয়ে পড়েন তিনি। এসময় তার মাথায় স্পর্শ করতে দেখা যায় মোস্তাফিজকে। পরে মাঠকর্মীরা ওই যুবককে মাঠ থেকে বের করে নিয়ে যান।

ঘটনার রাতে মিরপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাফিজুর রহমান জাগো নিউজকে বলেন, মাঠে প্রবেশ করা যুবক রাসেলকে স্টেডিয়ামে দায়িত্বপ্রাপ্ত পুলিশ সদস্যরা থানায় নিয়ে এসেছেন। তিনি এখন আমাদের হেফাজতে। কিছুক্ষণের মধ্যে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। কেন মাঠে প্রবেশ করেছিলেন, তার কোনো উদ্দেশ্য ছিল কি না, এসব বিষয়ে বিস্তারিত জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

ওসি আরও বলেন, ওই যুবক টিকিট কেটেই স্টেডিয়ামে প্রবেশ করেছিলেন। তিনি তার আসনে বসেই খেলা দেখছিলেন। কিন্তু খেলা চলাকালীন হঠাৎ এ ঘটনা ঘটিয়েছেন।

পাকিস্তানের ইনিংসের ১৩তম ওভার যখন শেষ হয়, পরের ওভারটি করার জন্য বোলিং মার্কের কাছাকাছি যাচ্ছিলেন মোস্তাফিজুর রহমান। তখনই এ ঘটনার অবতারণা। দেখা যায় নর্দার্ন গ্যালারির প্রায় ১২ ফুট উঁচু নিরাপত্তা বেষ্টনী ভেদ করে মাঠে ঢোকার চেষ্টা করেন ওই যুবক। তাকে থামাতে ছুটে যান পাঁচ-ছয়জন মাঠকর্মী।

কিন্তু একরকম ফুটবল স্কিল দেখিয়ে তাদের কাটিয়ে এক লাফে বিলবোর্ড ডিঙিয়ে সরাসরি মাঠে ঢুকে পড়েন ওই দর্শক। তাকে ঢুকতে দেখে খেলোয়াড়রা সবাই চলে যান মাঝ মাঠের দিকে। খানিক এগিয়ে আটকানোর চেষ্টা করেন আম্পায়ার তানভীর আহমেদ। নাছোড়বান্দা সেই দর্শক মোস্তাফিজের সামনে গিয়ে লুটিয়ে পড়েন।

ততক্ষণে মাঠে আসেন নিরাপত্তাকর্মীরা। সেই দর্শককে টানতে টানতে কিউরেটরের কক্ষের পাশের গেট দিয়ে বাইরে নিয়ে যাওয়া হয়। প্রায় ৭-৮ মিনিট বন্ধ থাকার পর শুরু হয় খেলা। কিন্তু ১৪তম ওভারের এক বল করে মাঠ ছেড়ে চলে যান মোস্তাফিজ। তার ওভারের বাকি বলগুলো করেন শরিফুল ইসলাম।

ম্যাচ শেষে এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হয় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরীর সঙ্গে। তার কাছে জানতে চাওয়া হয়, জৈব সুরক্ষা বলয়ের বাইরের একজন ব্যক্তি মোস্তাফিজের এতোটা কাছাকাছি আসার পর এখন পরবর্তী ব্যবস্থা কী হবে? সরাসরি উত্তর না দিলেও তিনি জানিয়েছেন, পুরো দলেরই করোনা পরীক্ষা করানো হবে।

জেএ/এমকেআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]