সাউথ বাংলার অর্থ আত্মসাৎ, ৫ জনের বিদেশযাত্রায় নিষেধাজ্ঞা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:০৩ পিএম, ২৯ নভেম্বর ২০২১
ফাইল ছবি

আগাম জামিন আবেদন করে আদালতে উপস্থিত না হওয়ায় সাউথ বাংলা এগ্রিকালচার অ্যান্ড কমার্স (এসবিএসি) ব্যাংকের একজন সাবেক ও চারজন বর্তমান কর্মকর্তার বিদেশযাত্রায় নিষেধাজ্ঞা জারি করেছেন হাইকোর্ট।

অর্থ আত্মসাতের এক মামলায় আগাম জামিনের আবেদন করেছিলেন এসবিএসি ব্যাংকের রাজউক এভিনিউ শাখার সিনিয়র অফিসার বিদ্যুৎ কুমার মণ্ডল, রাজউক শাখার অপারেশন ম্যানেজার মঞ্জুরুল আলম, খুলনা শাখার ক্রেডিট ইনচার্জ মো. নজরুল ইসলাম, খুলনা শাখার সিনিয়র অফিসার মারিয়া খাতুন এবং খুলনা শাখার সাবেক ম্যানেজম্যান্ট ট্রেইনি অফিসার ও বর্তমানে একটি বেসরকারি ব্যাংকের সিনিয়র অফিসার তপু কুমার সাহা।

তারা যাতে বিদেশ পালিয়ে যেতে না পারেন সেজন্য দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক), ইমিগ্রেশন পুলিশ ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে নির্দেশ দিয়ে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে বলেছেন আদালত। বিষয়টি জাগো নিউজকে নিশ্চিত করেছেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক।

সাউথ বাংলা এগ্রিকালচার ব্যাংকের টাকা আত্মসাতের মামলায় পাঁচ আসামি আগাম জামিনের আবেদন করে হাজির না হওয়ায় সোমবার (২৯ নভেম্বর) হাইকোর্টের বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি এ কে এম জহিরুল হকের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এই আদেশ দেন।

আদালতে আজ আবেদনকারী পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মো. হুমায়ুন কবির। দুদকের পক্ষে আইনজীবী ছিলেন মো. খুরশীদ আলম খান। রাষ্ট্রপক্ষে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক, সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল আন্না খানম কলি ও মো সাইফুর রহমান সিদ্দিকী সাইফ।

আসামিরা সবাই সাউথ বাংলা এগ্রিকালচার ব্যাংকের সাবেক চেয়ারম্যান এস এম আমজাদ হোসেনকে সহযোগিতা করে খুলনা শাখা থেকে ভুয়া ভিজিট প্রতিবেদন ও ভুয়া স্টক লট প্রস্তুত করে খুলনা বিল্ডার্স নামে কাগুজে একটি প্রতিষ্ঠানের মালিককে ঋণ পাইয়ে দিতে সহযোগিতা করেন এবং সংশ্লিষ্ট ঋণের বেনিফিসিয়ারিরা সাউথ বাংলা এগ্রিকালচার অ্যান্ড কমার্স ব্যাংক লিমিটেড থেকে ২০ কোটি ৬০ লাখ টাকা আত্মসাৎ করেন বলে অভিযোগ রয়েছে।

এ বিষয়ে দুদকের উপ-পরিচালক মো. গুলশান আনোয়ার প্রধান গত ২৪ অক্টোবর প্রতিষ্ঠানটির সমন্বিত জেলা কার্যালয়, ঢাকা -১ এ সাতজনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন। মামলার অন্য দুই আসামি হলেন ব্যাংকের সাবেক চেয়ারম্যান এস এম আমজাদ হোসেন ও প্রধান কার্যালয়ের ভিপি ও সাবেক শাখা প্রধান এস এম ইকবাল মেহেদী।

ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক বলেন, গত ২১ অক্টোবর অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে সাউথ বাংলা এগ্রিকালচার অ্যান্ড কর্মাস ব্যাংক লিমিটেডের সাবেক চেয়ারম্যান এস এম আমজাদ হোসেনসহ সাতজনের বিরুদ্ধে মামলা করে দুদক। পরে এ মামলায় আসামিরা জামিন আবেদন করেন। কিন্তু আবেদনটি শুনানির জন্য তালিকায় এলে তারা হাজির হননি।

এই আইনজীবী আরও বলেন, এর আগেও মামলাটি শুনানির জন্য একদিন কার্যতালিকায় ছিল, সেদিনও তারা আসেননি। এরপর আজকে তারা নট প্রেস (উত্থাপিত হয়নি মর্মে খারিজ) চেয়েছেন। পরে আদালত আবেদনটি উত্থাপিত হয়নি মর্মে খারিজ করে তারা যাতে বিদেশে পালিয়ে যেতে না পারেন সে বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে পুলিশের আইজিপি, ইমিগ্রেশন ও দুদককে নির্দেশ দেন।

এফএইচ/এমআরআর/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]