জাকাতের অর্থ আত্মসাৎ মামলা: সেই আইনজীবীকে সতর্ক করলেন হাইকোর্ট

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:৫৮ পিএম, ৩০ নভেম্বর ২০২১
ফাইল ছবি

ইসলামিক ফাউন্ডেশনের জাকাত তহবিলের অর্থআত্মসাতের ঘটনায় করা মামলা বাতিলে বন্ধুজন পরিষদের প্রধান সম্পাদক মিয়া মোহাম্মদ ইউনুসের আবেদন এর আগে একবার উত্থাপিত হয়নি মর্মে খারিজ করেছিলেন হাইকোর্ট।

এরপর একই আদালতে আবারও পুনরায় মামলাটি বাতিলের আবেদন করে আদালতের সময় নষ্ট করায় আইনজীবীকে সতর্ক করেছেন হাইকোর্ট।

বিষয়টি জাগো নিউজকে নিশ্চিত করেছেন সংশ্লিষ্ট বেঞ্চের রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক।

এ সংক্রান্ত আবেদন শুনানিতে মঙ্গলবার (৩০ নভেম্বর) হাইকোর্টের বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও এ কে এম জহিরুল হকের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এই আদেশ দেন।

আদালতে আবেদনকারীর পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মো. মাকসুদ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক, সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল আন্না খানম কলি ও মো. সাইফুর রহমান সিদ্দিকী সাইফ। দুদকের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী এ এম আজিজ।

মামলায় মিয়া মোহাম্মদ ইউনুসসহ মোট আসামি ছয়জন। অন্য পাঁচ আসামি হলেন- মানবতাবিরোধী অপরাধে আমৃত্যু কারাদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি মাওলানা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদী, মসজিদ কাউন্সিল ফর কমিউনিটি অ্যাডভান্সমেন্টের সাবেক চেয়ারম্যান মাওলানা আবুল কালাম আজাদ, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সাবেক পরিচালক (অর্থ ও হিসাব বিভাগ) মোহাম্মদ লুৎফল হক, ইসলামি সমাজ কল্যাণ কেন্দ্রের সাবেক সভাপতি তোফাজ্জল হোসেন ও ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মসজিদ কাউন্সিলের সহকারী পরিচালক মো. আব্দুল হক।

আসামিদের মধ্যে দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদী কারাগারে। আবুল কালাম আজাদ এবং আব্দুল হক পলাতক। জামিনে রয়েছেন অন্য তিন আসামি।

এই মামলায় সাতজনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দেওয়া হয়েছিল। তবে সাবেক ধর্মপ্রতিমন্ত্রী মোশাররফ হোসেন শাহজাহান মারা যাওয়ায় তাকে অভিযোগ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়।

ইসলামিক ফাউন্ডেশনের জাকাত তহবিলের এক কোটি ২৭ লাখ ৫০ হাজার টাকা আত্মসাতের অভিযোগে সংস্থাটির সাবেক পরিচালক (অর্থ ও হিসাব) আইয়ুব আলী চৌধুরী ২০১০ সালের ২৪ মে শেরেবাংলা নগর থানায় মামলা করেন।

মামলাটি তদন্ত করে দুদকের সহকারী পরিচালক ওয়াজেদ আলী গাজী ২০১২ সালের ৩০ এপ্রিল আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। গত ১১ জানুয়ারি এ মামলায় অভিযোগ গঠন করা হয়।

এর আগে চলতি বছরের ১১ জানুয়ারি রাজধানীর পুরান ঢাকার বকশীবাজারে স্থাপিত অস্থায়ী ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-১ এর বিচারক সৈয়দা হোসনে আরা অভিযোগ গঠনের মাধ্যমে বিচার শুরুর আদেশ দেন। একইসঙ্গে এ মামলা সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য রয়েছে বিচারিক আদালতে।

এর আগে এ সংক্রান্ত আবেদন শুনানিতে গত ২৬ সেপ্টেম্বর হাইকোর্টের বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি এস এম মজিবুর রহমানের ভার্চুয়াল বেঞ্চ ওই আবেদন খারিজ করেছিলেন। এর পরে আবারও আবেদন করায় সেটি আজ খারিজ করে আইনজীবীকে সতর্ক করেন আদালত।

ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক জানান, মামলাটি তদন্ত করে দুদকের সহকারী পরিচালক ওয়াজেদ আলী গাজী ২০১২ সালের ৩০ এপ্রিল আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। গত ১১ জানুয়ারি এ মামলায় অভিযোগ গঠন করা হয়। এর আগে গত ২৬ সেপ্টেম্বর একবার একই বিষয়ে মামলা বাতিলের আবেদন উপস্থাপন হয়নি মর্মে খারিজ হয়েছিল।

এফএইচ/এমআরআর/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]