ঢাবি সমাজবিজ্ঞানের প্রভাষক নিয়োগ হাইকোর্টে স্থগিত

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:৪৫ পিএম, ২৫ জানুয়ারি ২০২২

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক নিয়োগে গত ২৬ ডিসেম্বর দেওয়া বিজ্ঞপ্তির কার্যক্রম স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট।

এক প্রার্থীর আবেদনের শুনানি নিয়ে মঙ্গলবার (২৫ জানুয়ারি) হাইকোর্টের বিচারপতি মো. আশফাকুল ইসলাম ও বিচারপতি মো. ইকবাল কবিরের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে আজ আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন সিনিয়র আইনজীবী অ্যাডভোকেট মনজিল মোরসেদ ও অ্যাডভোকেট রিপন বাড়ৈ। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট আহমেদ ইশতিয়াক।

এ বিষয়ে মনজিল মোরসেদ বলেন, ২০১৮ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগে তিনটি প্রভাষক পদের জন্য নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে। ওই সময় এস এম ফাইজুল হক ইশান নামে এক প্রার্থীও অন্যদের মতো আবেদন করেন। সব প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে নিয়োগবোর্ড তাকেসহ মোট তিনজনকে নিয়োগের জন্য সুপারিশ করে। নিয়োগবোর্ডে সুপারিশপ্রাপ্ত হওয়ার পরও তাকে নিয়োগ না দেওয়ার প্রেক্ষিতে তিনি ২০১৮ সালে রিট করেন। ওই রিটে হাইকোর্ট আবেদনকারী ইশানকে কেন নিয়োগ দেওয়া হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেন। বর্তমানে রুলটি বিচারাধীন।

মনজিল মোরসেদ আরও বলেন, রিট বিচারাধীন থাকা অবস্থায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সমাজবিজ্ঞান বিভাগের একটি প্রভাষক পদে নিয়োগের জন্য গত ২৬ ডিসেম্বর বিজ্ঞপ্তি দেয়। ১১ জানুয়ারি এ নিয়োগ কার্যক্রম স্থগিতের আবেদন করেন রিটকারী ইশান।

সেই আবেদনের শুনানি শেষে নিয়োগ প্রক্রিয়ার কার্যক্রম স্থগিতের নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। একই সঙ্গে রিট মামলাটির শুনানির তারিখও নির্ধারণ করে দেন বলে জানান মনজিল মোরসেদ।

আইনজীবী মনজিল মোরসেদের মতে, উক্ত নিয়োগ সম্পন্ন হলে চলমান রিট মামলাটি অকার্যকর হয়ে যাবে। মামলাটি চূড়ান্তভাবে নিষ্পত্তি হওয়ার আগপর্যন্ত বর্তমান নিয়োগ কার্যক্রম স্থগিত না করলে পরবর্তীতে আবেদনকারীর পক্ষে রায় হলেও তা কার্যকর করার সুযোগ থাকবে না।

এফএইচ/বিএ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]