ডেল্টা লাইফের প্রশাসক নিয়ে আপিল শুনানি ২৬ জুন

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০২:৫৪ এএম, ২০ জুন ২০২২

শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত ডেল্টা লাইফ ইন্স্যুরেন্সে প্রশাসক নিয়োগে হাইকোর্টের রায় স্থগিতের বিষয়ে করা আপিল আবেদনের ওপর সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগে শুনানি অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ বিষয়ে পরবর্তী শুনানির জন্যে আগামী রোববার (২৬ জুন) পরবর্তী দিন ঠিক করেছেন আপিল বিভাগ। বিষয়টি জাগো নিউজকে নিশ্চিত করেন ব্যারিস্টার কারিশমা জাহান।

রোববার (১৯ জুন) প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের বিচারপতির আপিল বিভাগের বেঞ্চে এই শুনানি হয়।

আদালতে আজ শুনানি করেন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল শেখ মোহাম্মদ (এসকে) মোরশেদ। আইডিআরএর পক্ষে উপস্থিত ছিলেন ব্যারিস্টার ইমতিয়াজ ফারুক। অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষের উপস্থিত ছিলেন প্রধান আইন কর্মকর্তা ও জ্যেষ্ঠ আইনজীবী এএম আমিন উদ্দিন।

আদালতে এদিন ডেল্টা লাইফ ইন্স্যুরেন্সের রিট আবেদনকারীদের পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার তানজিব উল আলম ও ব্যারিস্টার মোস্তাফিজুর রহমান খান। তাদের সহযোগিতা করেন ব্যারিস্টার কারিশমা জাহান। আরও ছিলেন আইনজীবী এমএ মাসুম।

গত ১৩ মার্চ বিমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের (আইডিআরএ) করা আপিল আবেদন আপিল বিভাগের একই বেঞ্চে ভার্চুয়ালি শুনানি হয়েছিল। ওই দিন শুনানির পর এখন আবারও শুনানি শুরু হলো। এর আগে হাইকোর্টের রায় স্থগিত করে দেওয়া চেম্বারজজ আদালতের আদেশ বহালের মেয়াদ আরেক দফা বাড়িয়েছিলেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ। এর ফলে বর্তমান প্রশাসকের পদে থাকা নিয়ে কোনো বাধার কথা বলা হয়নি।

এছাড়া হাইকোর্টের রায়ের প্রত্যায়িত অনুলিপি যেহেতু পাওয়া গেছে, তাই এ সময়ের মধ্যে নিয়মিত আপিল আবেদন করা হবে বলেও জানানো হয়েছিল।

ডেল্টা লাইফ ইন্স্যুরেন্স কর্তৃপক্ষের করা রিটের পরিপ্রেক্ষিতে জারি করা রুলের চূড়ান্ত শুনানি শেষে গত ৬ জানুয়ারি হাইকোর্টের একটি দ্বৈত বেঞ্চ ওই প্রশাসক নিয়োগকে অবৈধ ঘোষণা করে রায় দিয়েছিলেন। হাইকোর্টের বিচারপতি খসরুজ্জামান এবং বিচারপতি মাহমুদ হাসান তালুকদারের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ ওই রায় ঘোষণা করেন।

ওই রায়ের বিরুদ্ধে আপিল আবেদন করা হলে সেটির শুনানি নিয়ে গত ১০ জানুয়ারি আপিল বিভাগের চেম্বারজজ আদালত হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত করে আদেশ দেন। এরপর ওই আবেদন শুনানি নিয়ে গত ১৬ জানুয়ারি সেটি বহাল রাখেন প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগ।

২০২১ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি আইডিআরএ’র সাবেক সদস্য সুলতান-উল-আবেদীন মোল্লাকে প্রতিষ্ঠানটির প্রশাসক হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়। তার মাসিক সম্মানি ধরা হয়েছে চার লাখ টাকা। এ বিষয়ে সুলতান-উল-আবেদীন মোল্লাকে পাঠানো চিঠিতে আইডিআরএ বলেছে, বিমা আইন ২০১০ এর ৯৬ ধারার (১) উপধারা অনুযায়ী প্রশাসক হিসেবে চূড়ান্তভাবে দায়িত্ব গ্রহণের চার মাসের মধ্যে কর্তৃপক্ষের কাছে একটি প্রতিবেদন দাখিল করতে হবে।

বিমা আইন ২০১০ এর ধারা ৯৫ (৩) এর আলোকে নতুন পলিসি ইস্যু আগের মতো অব্যাহত রাখা এবং কোম্পানির ব্যবসা ও অন্যান্য কার্যক্রম যথারীতি পরিচালনা করতেও বলা হয় এ সংক্রান্ত নির্দেশনায়।

চিঠিতে আরও বলা হয়, কোম্পানির প্রশাসনিক কার্যক্রম পরিচালনার জন্য মো. শাখাওয়াত নবী (অবসরপ্রাপ্ত অতিরিক্ত সচিব) এবং মো. রফিকুল ইসলামকে (অবসরপ্রাপ্ত যুগ্মসচিব) পরামর্শক হিসেবে শিগগির নিয়োগ দিয়ে কোম্পানির প্রশাসনিক কার্যক্রম সুচারুভাবে পরিচালনার বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে।

জীবন বিমা তহবিল বাড়িয়ে দেখানো, অতিরিক্ত ব্যবস্থাপনা ব্যয়সহ নানা অনিয়মের অভিযোগ তুলে গত বছরের ১১ ফেব্রুয়ারি ডেল্টা লাইফ ইন্স্যুরেন্সের পরিচালনা পর্ষদকে বরখাস্ত করে চার মাসের জন্য প্রশাসক নিয়োগ দেয় বিমা খাতের নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইডিআরএ। সংস্থাটির চেয়ারম্যান এম মোশাররফ হোসেনের বিরুদ্ধে ৫০ লাখ টাকা ঘুস চাওয়ার অভিযোগ আনার কয়েক দিন পর ডেল্টা লাইফ ইন্স্যুরেন্সের পর্ষদ বরখাস্ত করে নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি।

আইডিআরএর ওই নিয়োগ চ্যালেঞ্জ করে ডেল্টা লাইফের বরখাস্ত হওয়া পর্ষদ হাইকোর্টে রিট করে। ডেল্টা লাইফ ইনস্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেডে প্রশাসক নিয়োগের বৈধতা নিয়ে প্রতিষ্ঠানটির পরিচালনা পর্ষদের চার সদস্য ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হাইকোর্টে রিট করেন। রিটে প্রশাসক নিয়োগকে অবৈধ ঘোষণার আবেদন করা হয়েছিল।

জানা গেছে, ডেল্টা লাইফের জীবন বিমা তহবিল রয়েছে চার হাজার কোটি টাকার। তবে ডেল্টা লাইফের স্থগিত পরিচালনা পর্ষদ ও ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাৎ, দুর্নীতি, রাজস্ব ফাঁকি ও অব্যবস্থাপনার মাধ্যমে তিন হাজার ৬৮৭ কোটি টাকা ক্ষতিসাধনের অভিযোগ আনে আইডিআরএ।

 

এফএইচ/কেএসআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]