হাইকোর্টে জামিন পাননি হলমার্কের তুষার, মামলা নিষ্পত্তির নির্দেশ

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:২১ পিএম, ২৩ জুন ২০২২
ফাইল ছবি

কারাবন্দি হলমার্ক গ্রুপের মহাব্যবস্থাপক (জিএম) তুষার আহমেদ জামিন মঞ্জুর করেননি হাইকোর্ট। তবে সোনালী ব্যাংকের ১৩৫ কোটি টাকা আত্মসাতের মামলাটি বিচারিক আদালতকে ছয় মাসের মধ্যে নিষ্পত্তি করার নির্দেশ দিয়েছেন। যদি ছয় মাসের মধ্যে নিষ্পত্তি না হয় তাহলে তুষারের জামিন আবেদন বিবেচনা করতে বলেছেন।

বৃহস্পতিবার (২৩ জুন) হাইকোর্টের বিচারপতি এ এস এম আব্দুল মোবিন ও বিচারপতি মো. আতোয়ার রহমানের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে এদিন আবেদনের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী ড. শাহদীন মালিক। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল সুজিত চ্যাটার্জি বাপ্পী। পরে সুজিত চ্যাটার্জি বাপ্পী বিষয়টি জাগো নিউজকে নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, আসামি তুষারকে জামিন না দিয়ে মামলাটি ছয় মাসের মধ্যে নিষ্পত্তি করতে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। আদলত বলেছেন, এ সময়ের মধ্যে যদি মামলাটির বিচারকাজ শেষ না হয়, আর তখন যদি তুষার আহমেদ জামিন চান বিচারিক আদালত যেন আবেদনটি বিবেচনা করেন।

সোনালী ব্যাংকের হোটেল শেরাটন শাখা থেকে ১৩৫ কোটি ৪৪ লাখ ৯ হাজার ৪৮৪ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে দুদকের সহকারী পরিচালক মো. নাজমুচ্ছায়াদাত ২০১২ সালের ৪ অক্টোবর রমনা থানায় এ মামলা করেন। মামলায় হলমার্ক গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. তানভীর মাহমুদ ওরফে তফছীর, চেয়ারম্যান জেসমিন ইসলাম ও মহাব্যবস্থাপক তুষার আহমেদসহ ১৮ জনকে আসামি করা হয়।

এ মামলায় তুষারকে ২০১২ সালের ৮ অক্টোবর গ্রেফতার করা হয়। তদন্ত শেষে ২০১৩ সালের ৬ অক্টোবর ১৭ আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দেন তদন্তকারী কর্মকর্তা।

এরপর ২০১৬ সলের ২৭ মার্চ আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন বিচারিতক আদালত। ঢাকা বিশেষ জজ আদালত-১ এ বিচারাধীন মামলাটি সাক্ষ্যগ্রহণের পর্যায়ে আছে। ওই আদালতে জামিন না পেয়ে গত ডিসেম্বরে হাইকোর্টে জামিন আবেদন করেন তুষার আহমেদ।

এফএইচ/এমএএইচ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]