চাঁদাবাজি-প্রতারণা

দর্জি মনিরের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র জমা

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:২৩ পিএম, ০৪ আগস্ট ২০২২
ফাইল ছবি

রাজধানীর কামরাঙ্গীরচর থানায় করা চাঁদাবাজি-প্রতারণার মামলায় ‘জননেত্রী শেখ হাসিনা পরিষদ‘ নামের একটি ভুঁইফোড় সংগঠনের সভাপতি মনির খান ওরফে দর্জি মনিরের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র জমা দিয়েছে পুলিশ।

অভিযোগপত্রে ১৩ জনকে সাক্ষী করা হয়েছে। সোমবার (৮ আগস্ট) অভিযোগপত্র গ্রহণের বিষয়ে শুনানির জন্য দিন ধার্য করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) কামরাঙ্গীরচর থানার নিবন্ধন কর্মকর্তা হেলাল উদ্দিন বিষয়টি জাগো নিউজকে নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ২০২১ সালের ৩ আগস্ট চাঁদাবাজি ও প্রতারণার অভিযোগে ইসমাইল হোসেন নামে এক ব্যক্তি মনিরের বিরুদ্ধে মামলা করেন। গত ৭ জুলাই মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কামরাঙ্গীরচর থানার পরিদর্শক মুহাম্মদ সাইফুল ইসলাম আদালতে মামলার অভিযোগপত্র জমা দেন।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, ছোট একটি দর্জির দোকানে কাজ করতেন মনির। হঠাৎ করে নিজেকে রাজনৈতিক নেতা হিসেবে পরিচয় দিতে শুরু করেন। ফেসবুকে যুক্ত হন একাধিক রাজনৈতিক নেতার সঙ্গে। পরে নিজের নামের সঙ্গে যোগ করেন বিভিন্ন রাজনৈতিক পদবি। নিজেকে পরিচয় দিতেন বিভিন্ন ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের এমডি হিসেবে।

দর্জি মনিরের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র জমা

প্রধানমন্ত্রী, প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়, আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক, জাতীয় সংসদের স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীসহ রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের ছবির সঙ্গে নিজের ছবি ইডিট করে বসিয়ে নিজেকে বাংলাদেশ জননেত্রী শেখ হাসিনা পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি হিসেবে দাবি করতেন তিনি।

তিনি ও তার সহযোগীরা ঢাকা মহানগরীসহ বিভিন্ন জেলা-উপজেলায় কমিটি দেওয়ার নাম করে অনেকের কাছ থেকে টাকা নেন। ২০২১ সালের ৩০ জুলাই দুপুর আড়াইটার দিকে কামরাঙ্গীরচর থানার মাদবর বাজারের ৫৭ নম্বর ওয়ার্ডে মনির তার সংগঠনে পদ দেওয়া ও বড় বড় নেতাদের সঙ্গে সুসম্পর্ক করিয়ে দেওয়ার নামে ইসমাইল হোসেনের কাছে দুই লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন।

মামলার এজাহারে আরও উল্লেখ করা হয়, মনির ফেসবুকে নিজেকে ঢাকা-২ আসনের সংসদ সদস্য পদপ্রার্থী হিসেবে প্রচার করে এলাকায় রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ সৃষ্টি করেন। এতে ওই এলাকায় রাজনৈতিক উত্তেজনা দেখা দেয়।

জেএ/এসএএইচ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]