ঢাবির স্পিচ থেরাপি কোর্স কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না: হাইকোর্ট

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:৫৮ পিএম, ১৮ আগস্ট ২০২২
ফাইল ছবি

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) স্পিচ অ্যান্ড ল্যাঙ্গুয়েজ থেরাপির স্নাতক, স্নাতকোত্ত ও সান্ধ্যকালীন কোর্স কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট।

হাইকোর্টের বিচারপতি মো. খসরুজ্জামান ও বিচারপতি মো. ইকবাল কবীরের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চের জারি করা রুলের লিখিত আদেশ বুধবার (১৭ আগস্ট) প্রকাশ করেছেন।

আদালতে রিটের পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার অনীক আর হক ও মো. মনজুর নাহিদ।

স্বাস্থ্যসচিব, সমাজকল্যাণ সচিব, বাংলাদেশ রিহ্যাবিলিটেশন কাউন্সিলের চেয়ারম্যান, বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) চেয়ারম্যান ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) উপাচার্যকে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

ব্যারিস্টার অনীক আর হক বলেন, বাংলাদেশ রিহ্যাবিলিটেশন কাউন্সিল আইন, ২০১৮-তে স্পিচ থেরাপির ব্যাপারে সুনির্দিষ্ট করে বলা আছে, কোন প্রতিষ্ঠান কী কী বিষয় পড়াতে পারবে। আইনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়কে বিএসসি ডিগ্রি দেওয়ার ক্ষমতা দেওয়া আছে। এর ব্যত্যয় ঘটিয়ে তারা স্নাতক, স্নাতকোত্ত ও সান্ধ্যকালীন কোর্সসহ চারটি কোর্স চালু করে। যেটা আইন দ্বারা তারা পরিচালনা করতে পারেন না।

গত ৬ আগস্ট ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে স্পিচ অ্যান্ড ল্যাঙ্গুয়েজ থেরাপি কোর্স পরিচালনার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে রিট করা হয়। সোসাইটি অব স্পিচ অ্যান্ড ল্যাঙ্গুয়েজ থেরাপিস্টের প্রেসিডেন্ট ফিদা আলম শামস এ রিট করেন। ওই রিটের শুনানি নিয়ে এ রুল জারি করেন আদালত।

এফএইচ/এএএইচ/জেআইএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।