আমি না খেললে দেশের ফুটবলটারে বেইচ্ছা লাইবো: ব্যারিস্টার সুমন

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১০:৪৮ এএম, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২

‘৪৫ বছর বয়সে আমার কিন্তু ফুটবল খেলার কথা না। স্ট্রাইকার হিসেবে খেলতে গিয়ে শরীরের বিভিন্ন জায়গায় ব্যথা পেয়েছি। এরপরও শুধু একটা কারণে সব ব্যথা ভুলে গেছি। আমার কাছে মনে হয়েছে, আমি না খেললে দেশের ফুটবলটারে বেইচ্ছা লাইবো এক্কেবারে।

শুক্রবার (২৩ সেপ্টেম্বর) বিকেলে কিশোরগঞ্জের তাড়াইল উপজেলার তালজাঙ্গা ইউনিয়নের উমেদ আলী ভূঁইয়া উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে ফুটবল ম্যাচ শেষে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন এমন মন্তব্য করেন।

এদিন আকবপুর শততারা ফুটবল একাডেমি বনাম ব্যারিস্টার সুমন ফুটবল একাডেমির খেলা হয়। খেলায় ২-০ গোলে জয়লাভ করে সুমনের দল।

ব্যারিস্টার বলেন, বাংলাদেশের নারী ফুটবল দলের খেলোয়াড়রা দেখিয়েছেন, যত্ন করা হলে তাদের রত্ন বানানো সম্ভব। বাংলাদেশের ছেলেদের চারটা খাওয়ালে পড়ালে কম্বোডিয়ার মতো দেশকে হারিয়ে দিতে পারে। আমাদের রক্তের মধ্যে উন্মাদনা আছে, কিন্তু আমাদের নষ্ট করছেন নেতারা।

তিনি আরও বলেন, আপনাদের আরেকটা অনুরোধ করে যাই। দোয়া করবেন, ফুটবলটা যতদিন পর্যন্ত পূনরুজ্জীবিত না হচ্ছে, ততদিন আল্লাহ যেন আমাকে দুনিয়া থেকে না নেন। আামি খেলেতেই থাকবো।

এ সময় চ্যালেঞ্জ ছুড়ে ব্যারিস্টার সুমন বলেন, যদি আমি নেতা হতে পারি তাহলে চুনারুঘাট, মাধবপুরে আপনারা দেখবেন, কীভাবে একটা এলাকাকে মালয়েশিয়া বানাতে হয়।

বক্তব্যের শেষদিকে তিনি বলেন, আমি তরুণ প্রজন্মকে ধন্যবাদ জানাই। তোমরা পড়ালেখাটা ঠিকমতো করো। আমি যেহেতু উপরে উঠতে পেরেছি, তোমরাও পারবা। শুধু পড়াশোনাটা করে যাও। দেখবে, আমরা সবাই মিলে সোনার বাংলা বানিয়েই ছাড়বো।

এদিকে ফুটবল ম্যাচটি দেখতে মাঠে হাজির হন হাজার হাজার মানুষ। খেলা শুরুর আগেই দর্শকের চাপে স্কুলের একটি টিনের চালা ভেঙে পড়ে অন্তত ২০ জন আহত হন।

খেলার পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে তালজাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান আবু জাহেদ ভূঁইয়ার সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক কেন্দ্রীয় উপকমিটির সদস্য আমিরুল ইসলাম খান বাবুল।

বিশেষ অতিথি ছিলেন তাড়াইল উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জহিরুল ইসলাম ভূঁইয়া (শাহীন), নারী ভাইস চেয়ারম্যান নার্গিস আক্তার, উপজেলা জাতীয় পার্টির আহ্বায়ক মোফাজ্জল হোসেন ভূঁইয়া (চাঁন মিয়া), উপজেলা আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি ইসমাইল হোসেন সিরাজী।

আরও উপস্থিত ছিলেন, তাড়াইল উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন (লাকী), তাড়াইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. রফিকুল ইসলাম, নান্দাইল উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল মালেক (স্বপন)।

এফএইচ/এসএএইচ/এমএস

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।