রিজার্ভ চুরি: প্রতিবেদন দাখিলে আরও ৩০ দিন সময় পেলো সিআইডি

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:৫৬ পিএম, ০৪ অক্টোবর ২০২২

বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির ঘটনায় করা মামলায় ৫৯ ধার্য তারিখে প্রতিবেদন দাখিল করতে পারেনি মামলার তদন্ত সংস্থা পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। তারা তদন্তের সময় আরও ১৮০ কার্যদিবস বাড়ানোর আবেদন করেন। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য আদালত ৩০ কার্যদিবস সময় বাড়িয়েছেন।

মঙ্গলবার (৪ অক্টোবর) ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আরাফাতুল রাকিব তদন্ত কর্মকর্তার আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে এ সময় বাড়ান। গত ২৭ সেপ্টেম্বর এ মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সিআইডির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রায়হান উদ্দিন খান মামলাটির সুষ্ঠু-তদন্তের স্বার্থে ১৮০ কার্যদিবস সময়সীমা বাড়ানোর আবেদন করেন।

এরপর আদালত তদন্তকারী কর্মকর্তা উপস্থিতিতে মঙ্গলবার (৪ অক্টোবর) এ বিষয় শুনানির জন্য দিন ধার্য করেন। তবে, এদিন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা পবিত্র ওমরা হজে পালনের উদ্দেশ্য সৌদি আরবে থাকায় আদালতে উপস্থিত হতে পারেননি। এরপর আদালত ৩০ কার্যদিবস মামলার তদন্তের জন্য সময়সীমা বৃদ্ধি করেন।

রোববার (২ অক্টোবর) মামলার তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের দিন ধার্য ছিল। তবে তদন্ত সংস্থা সিআইডি প্রতিবেদন দাখিল না করায় ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আরাফাতুল রাকিব প্রতিবেদন দাখিলের জন্য ১৬ নভেম্বর দিন ধার্য করেন।

২০১৬ সালের ৫ ফেব্রুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক থেকে জালিয়াতি করে সুইফট কোডের মাধ্যমে বাংলাদেশ ব্যাংকের আট কোটি ১০ লাখ ডলার হাতিয়ে নেয় দুর্বৃত্তরা। পরে ওই টাকা ফিলিপাইনে পাঠানো হয়। সংশ্লিষ্টরা ধারণা করেন, দেশের অভ্যন্তরের কোনো চক্রের সহায়তায় হ্যাকার গ্রুপ রিজার্ভের অর্থপাচার করেছে।

ওই ঘটনায় ২০১৬ সালের ১৫ মার্চ বাংলাদেশ ব্যাংকের অ্যাকাউন্টস অ্যান্ড বাজেটিং ডিপার্টমেন্টের উপ-পরিচালক জোবায়ের বিন হুদা বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামাদের আসামি করে মতিঝিল থানায় মানিলন্ডারিং প্রতিরোধ আইন-২০১২ (সংশোধনী ২০১৫) এর ৪ ধারাসহ তথ্য ও প্রযুক্তি আইন-২০০৬ এর ৫৪ ধারায় ও ৩৭৯ ধারায় মামলা করেন। বর্তমানে মামলাটি তদন্ত করছে সিআইডি।

জেএ/এমএএইচ/এএসএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।