আইনজীবীর ওপর অন্য আইনজীবীদের হামলা, বার কাউন্সিলে অভিযোগ

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:৩৬ পিএম, ২৬ নভেম্বর ২০২২
ফাইল ছবি

আইনজীবীর করা মামলায় আসামি পক্ষে মামলা পরিচালনা করায় হামলার শিকার হয়েছেন আইনজীবী মিঞা তবিবুর রহমান। মামলার বাদী ঝিনাইদহ জেলা আইনজীবী সমিতির সদস্য মাজহারুল আনোয়ার সবুজসহ কয়েকজন আইনজীবী এ হামলা চালিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় আইনজীবী সবুজ ও তার সঙ্গীদের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ বার কাউন্সিলে অভিযোগ করা হয়েছে।

অভিযোগে বলা হয়, জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টে বিচারাধীন সিআর ৬৪৩/২০ মামলার আসামি জনি ও সুজনের পক্ষে বিধি মোতাবেক আইনি সহায়তা দেওয়ার জন্য গেলে এ বিষয়ে ওই বারের (ঝিনাইদহ জেলা আইনজীবী সমিতির আইডি নং ১৯২) আইনজীবী তাবিবুর রহমানের ওপর ক্ষুব্ধ হয়ে আসামিদের পক্ষে যে কোনো মামলায় সহযোগিতা থেকে বিরত থাকতে হুমকি দেওয়া হয়।

কিন্তু পেশাগতভাবে আমার পেশার প্রতি শ্রদ্ধা রেখে আসামিদের পক্ষে যুক্তি-তর্ক উপস্থাপন করলে মামলার বাদী সবুজ নিজে একজন আইনজীবী হয়েও মঞ্জুরুল হাসান শিমুল (সদস্য নং-২০৭), মো. মোস্তাফিজুর রহমান মিঠুনসহ (সদস্য নং-২১৩) তাদের ভাড়াটে লোকদের দ্বারা আদালত প্রাঙ্গণে আমাকে বেধড়ক মারপিট করে। এতে আহত হয়ে আমি মাটিতে লুটিয়ে পড়লে তারা কিল, ঘুষি, লাথি মেরে রক্তাক্ত করে রেখে চলে যায়।

গত ২২ নভেম্বর দুপুরে ঝিনাইদহ জেলা চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কোর্ট থেকে ধরে নিয়ে চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টের গেটের রাস্তার ওপরে নিয়ে আইনজীবী সবুজ, আইনজীবী মনজুরুল হাসান শিমুলসহ আরও পাঁচ থেকে সাতজন আইনজীবী তবিবুর রহমানকে মারধর করে।

এসময় আইনজীবী সবুজের সঙ্গে ভাড়াটে সন্ত্রাসী বাহিনী ছিল বলে অভিযোগ তোলা হয়। এ ঘটনা নিয়ে ঝিনাইদহ জেলা আইনজীবী সমিতির অনেক সদস্য ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। এর আগে এ ঘটনায় ঝিনাইদহ জেলা আইনজীবী সমিতিতে পেশাগত অসৎ আচরণের অভিযোগ তুলে অভিযোগ করেন ভুক্তভোগী আইনজীবী।

এফএইচ/আরএডি/জেআইএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।