আ’লীগ নেতাকে বেঁধে মারধর

পটিয়ায় চেয়ারম্যান জসিমের দায়িত্ব পালনের ওপর স্থিতিবস্থা

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:৫৩ এএম, ৩০ নভেম্বর ২০২২

চট্টগ্রামের পটিয়ায় আওয়ামী লীগ নেতাকে খুঁটিতে বেঁধে মারধরের ঘটনায় হাইদগাঁও ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বদরুউদ্দিন মোহাম্মদ (বি এম) জসিমকে বহিষ্কারের বিষয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। একই সঙ্গে তার দায়িত্ব পালনের পরও স্থিতিবস্থা জারি করেছেন আদালত।

এ সংক্রান্ত আবেদনের শুনানি নিয়ে মঙ্গলবার (২৯ নভেম্বর) হাইকোর্টের মো. মুজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি কাজী মো. ইজারুল হক আকন্দের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ আদেশ দেন। বিষয়টি জাগো নিউজকে নিশ্চিত করেন সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল আব্বাস উদ্দীন।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষের শুনানিতে ছিলেন ডেপুর্টি অ্যাটর্নি জেনারেল অরবিন্দ কুমার রায়। তার সঙ্গে ছিলেন সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল মোহাম্মদ আব্বাস উদ্দিন ও সামসুন নাহার লাইজু।

আরও পড়ুন>> পটিয়ায় খুঁটির সঙ্গে বেঁধে আ’লীগ নেতাকে প্রতিপক্ষের মারধর

এর আগে হাইদগাঁও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি জিতেন কান্তি গুহকে মারধরের ঘটনায় চেয়ারম্যান বি এম জসিমকে সাময়িক বরখাস্ত করে স্থানীয় সরকার বিভাগ।

চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলার হাইদগাঁও ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বদরুউদ্দিন মোহাম্মদ জসীমকে সাময়িক বরখাস্ত করেছে স্থানীয় সরকার বিভাগ। স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগের ইউপি-১ শাখার উপসচিব এ কে এম মিজানুর রহমানের সই করা এক আদেশে এ তথ্য জানানো হয়।

আরও পড়ুন>> আ’লীগ নেতাকে বেঁধে নির্যাতন, ছেলেসহ ইউপি চেয়ারম্যান গ্রেফতার

আদেশে বলা হয়, পটিয়ার চেয়ারম্যান জসিমের বিরুদ্ধে আদালত অভিযোগপত্র গ্রহণ করায় তার দ্বারা ইউনিয়ন পরিষদের ক্ষমতা প্রয়োগ প্রশাসনিক দৃষ্টিকোণে সমীচীন নয়। চেয়ারম্যান জসিমের দ্বারা সংঘটিত অপরাধমূলক কার্যক্রম ইউনিয়ন পরিষদসহ জনস্বার্থের পরিপন্থি বিবেচনায় স্থানীয় সরকার (ইউনিয়ন পরিষদ) আইনানুযায়ী তাকে স্বীয় পদ থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হলো।

গত ২৯ এপ্রিল বিকেলে ইফতার মাহফিলের ব্যানারে চেয়ারম্যানের ‘নাম না থাকা’ নিয়ে বাগবিতণ্ডার জেরে হাইদগাঁও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি জিতেন কান্তি গুহকে খুঁটির সঙ্গে বেঁধে মারধর করা হয়।

আরও পড়ুন>> আওয়ামী লীগ নেতাকে মারধর, ইউপি চেয়ারম্যান বরখাস্ত

মারধরের পর জিতেন গুহকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার ছোট ভাই তাপস গুহ বাদী হয়ে সাতজনের নামোল্লেখ করে এবং ৫ থেকে ৬ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামি করে মামলা করেছেন। খুঁটির সঙ্গে বাঁধা অবস্থায় জিতেনের রক্তাক্ত ছবি শুক্রবার সন্ধ্যার পর ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়লে তা নিয়ে আলোচনা শুরু হয়।

অভিযোগ রয়েছে চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক জসিমের নেতৃত্বে সেখানে হামলা হয়। পরে এ ঘটনায় ছেলে মুসফিক উদ্দিন ওয়াসিকেবসহ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বি এম জসিমকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

এফএইচ/এমএএইচ/এমএস

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।