মানবতাবিরোধী অপরাধ

ময়মনসিংহের ৫ জনের বিরুদ্ধে পরবর্তী সাক্ষ্য ৩ জানুয়ারি

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:২৮ এএম, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২
ফাইল ছবি

একাত্তরে সংঘটিত মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় ময়মনসিংহের ধোবাউড়া উপজেলার পাঁচ আসামির বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষের ষষ্ঠ সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ শেষ হয়েছে। এ মামলায় পরবর্তী সাক্ষ্য গ্রহণের জন্য আগামী ৩ জানুয়ারি দিন ঠিক করেছেন ট্রাইব্যুনাল।

বুধবার (৭ ডিসেম্বর) আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যান বিচারপতি মো. শাহিনুর ইসলামের নেতৃত্বে তিন সদস্যের বেঞ্চ এ আদেশ দেন। ট্রাইব্যুনালের অন্য দুই সদস্য হলেন- বিচারপতি আবু আহমেদ জমাদার ও বিচারপতি কেএম হাফিজুল আলম।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষের শুনানিতে ছিলেন প্রসিকিউটর ঋষিকেশ সাহা। তার সঙ্গে ছিলেন সৈয়দ হায়দার আলী, প্রসিকিউটর ব্যারিস্টার শেখ মোসফেকুর রহমান।

জাগো নিউজকে প্রসিকিউটর ঋষিকেশ সাহা বলেন, এ মামলায় মোট পাঁচজন আসামির মধ্যে তিনজন আছেন কারাগারে। বাকি দুজন পলাতক।

গ্রেফতার তিন আসামি হলেন- ধোবাউড়া পশ্চিম বালিগাঁও গ্রামের মো. কিতাব আলী ফকির (৮৫), মো. জনাব আলী (৬৮) ও মো. আব্দুল কুদ্দুছ (৬২)।

এর আগে ২০১৯ সালের ১০ মার্চ ময়মনসিংহের ধোবাউড়ায় মানবতাবিরোধী অপরাধের এক মামলায় তদন্ত প্রতিবেদন চূড়ান্ত করে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের তদন্ত সংস্থা। সেদিন ধানমন্ডিতে তদন্ত সংস্থার কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে তদন্ত প্রতিবেদনের সারসংক্ষেপ তুলে ধরা হয়।

সংবাদ সম্মেলন বলা হয়, ওই মামলার পাঁচ আসামিই ময়মনসিংহের ধোবাউড়ার। একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধের সময় ধোবাউড়াতে আসামিরা অপরাধ সংঘটিত করেন, তখন এটি ছিল হালুয়াঘাট থানার অধীন। পাঁচ আসামির প্রত্যেকেই বিএনপির রাজনীতি করেন। আসামিদের মধ্যে দুজন পলাতক থাকায় তাদের নাম ঠিকানা প্রকাশ করেনি তদন্ত সংস্থা।

এফএইচ/এমএইচআর/এএসএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।