যে কারণে দাম্পত্য জীবনের একান্ত কথা বান্ধবীকে বলবেন না

লাইফস্টাইল ডেস্ক
লাইফস্টাইল ডেস্ক লাইফস্টাইল ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:১৪ পিএম, ১২ অক্টোবর ২০১৯

মেয়েরা প্রকৃতিগতভাবেই একটু গল্পপ্রিয় হয়ে থাকে। বিশেষ করে বান্ধবীদের সঙ্গে আড্ডা দিলে তো কথাই নেই। বাড়ির কথা, অফিস কলিগদের কথা, প্রেমিক বা বরের কথা- সবই তখন গল্প আকারে প্রকাশ পেতে থাকে। বান্ধবীদের সঙ্গে মন খুলে গল্প করতে পারাটাও সৌভাগ্যের। কিন্তু তা করতে গিয়ে আপনি একান্ত ব্যক্তিগত কথাও বলে দিচ্ছেন না তো!

আপনার এবং আপনার স্বামীর ব্যক্তিগত জীবন, যৌনজীবন নিয়ে বান্ধবীদের সঙ্গে আলোচনাই কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে নড়বড়ে দাম্পত্য সম্পর্কের। অনেক কারণেই বান্ধবীদের সঙ্গে নিজেদের একান্ত বিষয় নিয়ে কথা বলা অনুচিত। যেসব বিষয়ে খেয়াল রাখবেন-

Bandhobi-3.jpg

অনেক সময় এমন হতে পারে, আপনি স্বামীর কোনো একটি বিষয় বান্ধবীদের বলেছিলেন। তাদের মধ্য থেকে কেউ হয়তো তা আপনার স্বামীকে বলে দিয়েছেন! এমনটা হলে স্বামীর কাছে সৎ থাকুন। তাকে সত্যিটা বলুন যে আপনিই ওই কথা তাদেরকে বলেছেন। আপনার স্বামী বিরক্ত হলে বান্ধবীদের কাছে একান্ত ব্যক্তিগত কথা বলা থেকে বিরত থাকুন।

স্বামীর জায়গায় নিজেকে চিন্তা করুন। তিনি যদি তার বন্ধুদের কাছে আপনার সম্পর্কে নানা কথা আলোচনা করেন তাহলে আপনার কেমন লাগবে? নিশ্চয়ই ভালোলাগবে না! তাহলে এই বিষয়টি স্বামীর ক্ষেত্রেও মেনে চলার চেষ্টা করুন।

Bandhobi-3.jpg

বান্ধবী অনেকেই হন। কিন্তু সত্যিই কি মনের কথা সবার সঙ্গে ভাগ করে নেয়া যায়? সবাইকে কি বিশ্বাস করা যায়? আপনার বান্ধবীর হয়তো অনেক ভালো গুণ আছে, পাশাপাশি হয়তো তার পেটে কথা থাকে না! এক্ষেত্রে সতর্ক হোন। আপনার একান্ত ব্যক্তিগত কথা বান্ধবীদের সঙ্গে শেয়ার করার আগে দুইবার ভাবুন।

Bandhobi-3.jpg

চটপটে কিংবা মুখর হওয়া ভালো। তবে সঠিক সময়ে থামতে জানাও জ্ঞানীর লক্ষণ। তাই আপনি যতই আড্ডাপ্রিয় হোন না কেন চুপ থাকতেও জানতে হবে। নয়তো বেশি কথা বলতে বলতে একটা সময় এমনকিছু কথা বের হয়ে যাবে যা আসলে আপনি বলতে চাননি। আপনার একান্ত দাম্পত্য সম্পর্ক যত মধুরই হোক না কেন তা কাউকে বলতে যাওয়ার দরকার নেই।

এইচএন/এমএস

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - jagofeature@gmail.com