হুমায়ূননামা

সাহিত্য ডেস্ক সাহিত্য ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১:১৬ পিএম, ১৯ জুলাই ২০২০

নাজমুল হুদা

আজ রবিবার, নিউইয়র্কের আকাশে ঝকঝকে রোদ, লিলুয়া বাতাস
এই বরষায়, শ্রাবণ মেঘের দিন-
বাদল দিনের প্রথম কদম ফুল, নিমফুল, পদ্মফুল কিংবা জ্যোৎস্নার ফুল হয়ে
এই মেঘ এই রৌদ্র ছায়ায়-প্রিয় পদরেখা নিয়ে তার ঘরে ফেরার কথা।
এতো অপেক্ষা, কবি বা মন্ত্রী মহাদোয়ের আগমন এর জন্য নয় ।

আজ রবিবার- মধ্যাহ্ন, অপরাহ্ণ, দিনের শেষে
রূপালি নক্ষত্রের রাত এলো, স্তদ্ধ জননী ও জ্যোৎস্না যেন চন্দ্রগ্রহণ
তিনপ্রহর কেটে গেল...অন্যদিন প্রথম প্রহর এ
সে আসে ধীরে, একা॥
একি কাণ্ড! সাদা কফিনে মৃন্ময়ী নীল মানুষ!
যেন উড়ে যায় বকপক্ষী বহু দূরুত্বে ওমেগা পয়েন্ট, দারুচীনি দ্বীপে বা অচিন পুরে।
এ যেন অন্যভুবন- নন্দিত নরকের সাজঘরে দ্বিতীয় মানব; অসময়ে অযাত্রা
সেখানে পারাপারের জন্য পায়ের তলায় খড়ম নেই,
লেখার জন্য কাঠপেন্সিল, বলপয়েন্ট, ফাউনন্টেনপেন কিছু নেই
সবাই গেছে বনে, জননী, প্রিয়তমাষু, পুফি, পুতুল, রূপা, রুমালী, লিপি, লীলাবতী মানবী
কোথাও কেউ নেই।
পাখি আমার একলা পাখি!!
শ্যামল ছায়ায় ছায়া বীথিতলে মেঘের উপর বাড়ি-মেঘের ছায়ায় মাতাল হাওয়ায়
এইসব দিন রাত্রী র আপন আঁধারে নিরন্তর জীবন যাপন।

রূপকথা বা পুষ্পকথা বা নাট্য মঙ্গলের কথা নয়-
এক বাদশাহ্ নামদার গুণীন লেখকের মৃত্যু
আনন্দ বেদনার কাব্য ।
এখন যদিও সন্ধ্যা, তবুও মনে বনবাতাসীর সৌরভ
হদয়ে আগুনের পরশমণি।

এসএ/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]