বিশ্বে অপরাধবিজ্ঞানের সেরা লেখক রাজুব ভৌমিক

সাহিত্য ডেস্ক সাহিত্য ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৩:১২ পিএম, ২৯ জুলাই ২০২০

বিশ্বের অপরাধবিজ্ঞান বইয়ের একটি র্যাঙ্কিং প্রকাশ করেছে যুক্তরাষ্টের বুক অথোরিটি নামের একটি প্রতিষ্ঠান। প্রতিষ্ঠানটি অপরাধবিজ্ঞান বিষয়ে বিশ্বের সেরা বারোটি বইয়ের তালিকা প্রকাশ করেছে। বইগুলো সাধারণত ইলন মাস্ক, মার্ক জুকারবার্গ, ওয়ারেন বাফেট থেকে শুরু করে বিশ্বের খ্যাতনামা ব্যক্তিদের কাছ থেকে সুপারিশপ্রাপ্ত হয় বলে ওয়েবসাইটটির সূত্রে জানা যায়।

এ তালিকায় ৪.০৮ পয়েন্ট নিয়ে বারোতম হয় বিখ্যাত লেখক জেফ্রি ওয়াকার এবং সন মাদানের অপরাধবিজ্ঞানের উপর পরিসংখ্যানের একটি বই। এ তালিকায় ৪.৫৯ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় বইটি হচ্ছে ‘লিডিং থিউরিজ অব ডেলিনকুয়েন্ট বিহেভিয়ার অ্যান্ড ক্রিমিনোলজি’। যার লেখক বাংলাদেশি বংশোদ্ভুত লেখক ও কবি রাজুব ভৌমিক। র্যাঙ্কিংয়ের প্রথম বইটির পয়েন্ট ৪.৬৪।

প্রথম স্থান না পেলেও লেখক রাজুব ভৌমিক সন্তুষ্ট। তিনি বলেন, ‘বইটির প্রকাশনা প্রতিষ্ঠানের একজন কর্মকর্তা ফোন করে বললেন, আমার লেখা একটি বই বিশ্বে দ্বিতীয় হয়েছে। প্রথমে তার কথা বিশ্বাস করতে পারিনি। পরে তিনি আমাকে ই-মেইল করে সব তথ্য দিলেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘এ পাওয়া সত্যিই সম্মানের। এ অর্জন বাংলাদেশের। আমি মনের আনন্দে লিখি। লিখে মানুষের ভালোবাসা অর্জন করতে পেরেছি বলে দায়িত্বটা আরও বেড়ে গেল।’

বুক অথোরিটি বিশ্বের সেরা বইয়ের তালিকা নিয়মিত প্রকাশ করে। প্রতিষ্ঠানটি বিশ্বে জনমত জরিপ, বিক্রয়ের তথ্য এবং জনপ্রিয়তার ভিত্তিতে প্রতিমাসে সেরা বইয়ের তালিকা প্রকাশ করে।

কবি, লেখক ও অধ্যাপক ড. রাজুব ভৌমিকের জন্ম বাংলাদেশের নোয়াখালী জেলায়। গত ছয় বছর ধরে তিনি জন জে কলেজ, সিটি ইউনিভার্সিটি নিউইয়র্কে অপরাধবিদ্যা, আইন ও বিচার বিভাগে অধ্যাপনা করছেন। তিনি হসটস কলেজ, সিটি ইউনিভার্সিটি নিউইয়র্কেও মনস্তাত্ত্বিক বিভাগে অধ্যাপনা করছেন।

গত আট বছর ধরে পেশায় একজন পুলিশ অফিসার হিসেবে নিউইয়র্ক সিটি পুলিশ ডিপার্টমেন্টে (এনওয়াইপিডি) কাউন্টার টেরোরিজম অফিসার হিসেব কর্মরত।

কবি ড. রাজুব ভৌমিক আয়না সংগীত ও আয়না সনেটের জনক। আয়না সনেট সৃষ্টির মাধ্যমে তিনি বিশ্বে ব্যাপক সাড়া জাগিয়েছেন। তার প্রকাশিত বইয়ের সংখ্যা ২৫টিরও বেশি। সিটি ইউনিভার্সিটি অব নিউইয়র্কে তার প্রকাশিত তিনটি বই পাঠ্যপুস্তক হিসেবে অন্তর্ভুক্ত হয়।

এসইউ/এএ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]