বইমেলা লেখকদের উৎসাহিত ও পরিচিত করে

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০২:৫৪ পিএম, ০৪ ডিসেম্বর ২০২১

‘অবসরপ্রাপ্ত সামরিক কর্মকর্তাদের মধ্যে যারা লেখালেখি করেন তাদের পরিচিতির একটি অন্যতম প্ল্যাটফর্ম রাওয়া ক্লাবের এই বইমেলা। অবসরপ্রাপ্ত সামরিক কর্মকর্তা যারা আছেন লেখালেখিতে তাদের উৎসাহিত করতে প্রতি বছরই এই মেলার আয়োজন করা হয়। অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের মধ্যে যারা মুক্তিযোদ্ধা রয়েছেন তারা মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসসহ তাদের জীবনের নানা অভিজ্ঞতা নিয়ে লেখেন। তবে এই মেলার আরও বেশি প্রচার দরকার।’

শনিবার (৪ ডিসেম্বর) দুপুরে রাজধানীর মহাখালীতে রাওয়া ক্লাবে আয়োজিত বইমেলায় এসে সাবেক নির্বাচন কমিশনার রাওয়া ক্লাবের সদস্য ও বইমেলার অন্যতম লেখক বিগ্রেডিয়ার জেনারেল (অব.) ড. এম সাখাওয়াত হোসেন এ কথা বলেন।

রিটায়ার্ড আর্মড ফোর্সেস অফিসার্স ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন (রাওয়া) দুই দিনব্যাপী এই বইমেলার আয়োজন করেছে।

jagonews24

তিনি বলেন, দেশের রাজনীতি, বিশ্ব রাজনীতিসহ ভ্রমণ কাহিনীসহ আরও নানা বিষয় নিয়েই লেখেন তারা। মেলার আয়োজনের মাধ্যমে তাদের আরও উৎসাহিত করা হয়। সেইসঙ্গে অনেক প্রকাশককেও এখানে আমন্ত্রণ জানানো হয়। যার ফলে তাদের সঙ্গেও একটা পরিচিতি ঘটে ও প্রচার পায়। এতে লেখালেখির চর্চারও সুযোগ তৈরি হয়।

সাবেক এই নির্বাচন কমিশনার বলেন, অন্যান্য দেশে সামরিক কর্মকর্তাদের মধ্যে অনেক বড় বড় লেখক রয়েছেন। কিন্তু বাংলাদেশে নেই। এখানে তেমন লেখালেখি হয় না। এই আয়োজনের ফলে এক ধরনের উৎসাহ ও পরিচিতি গড়ে ওঠে লেখকদের। সবার জন্য উন্মুক্ত থাকায় সামরিক এসব লেখকদের সম্পর্কে মানুষ জানতে পারে।

সপ্তমবারের মতো আয়োজন করা হলো রাওয়া বইমেলা-২০২১। শুক্রবার শুরু হওয়া এই মেলা শেষ হবে আজ। গতকাল সকাল ১০টায় কেক কেটে প্রধান অতিথি হিসেবে বইমেলার উদ্বোধন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইমেরিটাস অধ্যাপক সিরাজুল ইসলাম চৌধুরী। উদ্বোধণী অনুষ্ঠানে রাওয়া চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল আলাউদ্দিন এম এ ওয়াদুদ, রাওয়া ভাইস চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল মোহাম্মদ কামরুজ্জামান (অব.) এবং কর্নেল খালেদা পারভিন উপস্থিত ছিলেন।

আরএসএম/ইএ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]