পবিত্র রমজানের দুটি কবিতা

সাহিত্য ডেস্ক সাহিত্য ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৩:১২ পিএম, ১৯ এপ্রিল ২০২১

সিবগাতুর রহমান

রোজা

রমজানের রোজার মতো ইবাদত আর নাই,
আল্লাহ এর প্রতিদান দেবেন জেনো মোমিন ভাই।

এরূপ ইবাদতের ফজল যায় না হাতে গোনা,
নিজেরে জ্বালিয়ে ও ভাই করো খাঁটি সোনা।
শয়তান সব শিকলাবদ্ধ বেহেশতের দ্বার খোলা,
রিপুর আবেগ দমন করে নিজেরে দাও দোলা।

খোদার তরে ত্যাজ্য করো সকল আহার দিনে,
রাত গভীরে তাহাজ্জুতে ঝোঁক তাহার পানে।
মনের যতো মন্দ সবই দহন করো ভাই,
লভিয়া নাজাত খোদার অন্তরে লও ঠাঁই।

নামাজ জাকাত তিলাওয়াতের ছোটাও ফোয়ারা,
আল্লাহ নাম জপিয়া কাটাও দিবা-নিশি সারা।
শেষ দশকে বেজোড় রাতে খোজ দিয়া মন,
পাইলেও পাইতে পার ভাই খোদার দরশন।

দরবারে তোমার গো খোদা করছি মিনতি,
মোদের দেখাও তোমার নূরের জ্যোতি।
তোমার খুশির তরে ওগো মোদের এ সংযম,
কবুল করে নাও গো প্রভু আমরা যে অধম।

****

রমজানের ইবাদত

রমজানেতে রোজা রাখো ওহে মোমিন ভাই,
রোজা শুধুই খোদার জন্য আর তো কিছু নাই।
এমন ইবাদতের ফজল যায় না হাতে গোনা,
আপনারে জ্বালিয়ে ভাই করো খাঁটি সোনা।
রোজার বিনিময়ে খোদায় নিজেই প্রতিদান,
আয়েশ ভুলে তাহার তরে দেখাও প্রেমনিশান।
খোদার লাগি আহার ভোজন ত্যাগ করিও দিনে,
নিশীথ রাতে তাহাজ্জুতে ঝুঁকিও তাহার পানে।
গরিব দুঃখি ভুখা নাঙা নানান রঙের বেশে,
দুনিয়াতে বিরাজ করেন খোদায় হেসে হেসে।
মনের যতো কালি সবই জ্বালিয়ে করো ছাই,
নাজাত লাভ করে খোদার ছায়ায় লও ঠাঁই।
নামাজ জাকাত তিলাওয়াতের ছুটুক ফোয়ারা,
প্রভুর নামে কাটুক তোমার দিবস-নিশি সারা।
শয়তান সব বন্দি খাঁচায় বেহেশতের দ্বার খোলা,
রিপুর আবেগ দমন করে নিজেরে দাও দোলা।
শেষ দশকে তালাশ করো রাতের আঁধারে,
খুঁজে পাবে তোমার পাশেই মহান খোদারে।
করুণাময় খোদা আমার দয়ার সীমা নাই,
মনের যত চাওয়া পাওয়া খুঁজিয়া লও ভাই।
আজকে তোমার দরবারেতে করছি মিনতি,
আমাদেরে দেখাও তোমার নূরের জ্যোতি।
তোমার খুশির তরে ওগো মোদের এ সংযম
কবুল করে নাও গো প্রভু আমরা যে অধম।

এসইউ/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]