কাজী আনোয়ার হোসেনের জানাজা সম্পন্ন

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৪:৪৩ পিএম, ২০ জানুয়ারি ২০২২

সেবা প্রকাশনীর প্রতিষ্ঠাতা, রহস্য-ঔপন্যাসিক, পাঠকনন্দিত গোয়েন্দা চরিত্র মাসুদ রানার স্রষ্টা কাজী আনোয়ার হোসেনের নামাজে জানাজা সম্পন্ন হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২০ জানুয়ারি) দুপুর সোয়া ১টায় রাজধানীর সেগুনবাগিচার নুর জামে মশজিদে নন্দিত এ লেখক, অনুবাদক ও প্রকাশকের জানাজা সম্পন্ন হয়।

এ সময় গণমাধ্যমকর্মী ও তার পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। নন্দিত এই লেখককে বনানী কবরস্থানে তার মায়ের কবরে দাফন করা হবে বলে জানিয়েছেন পরিবারের সদস্যরা।

jagonews24

বুধবার (১৯ জানুয়ারি) বিকেল ৪টা ৪০ মিনিটে কাজী আনোয়ার হোসেন বারডেম হাসপাতালে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮৬ বছর।

কাজী আনোয়ার হোসেন চাচাতো ভাই কাজী রওনক হোসেন বলেন, এটা খুবই দুঃখজনক যে আমরা তাকে সঠিকভাবে মূল্যায়ন করতে পারিনি। রাষ্ট্রীয়ভাবে বা বাংলা একাডেমি থেকেও তাকে মূল্যায়ন করা হয়নি। তবে তিনি এসবের কাঙ্গালও ছিলেন না। কাজী আনোয়ার হোসেন সবসময় বলতেন, আমি আমার কাজটা করে যাই।

তিনি বলেন, উনার (কাজী আনোয়ার হোসেনের) জীবনের শুরুটা ছিল গান দিয়ে। তিনি বেতারে গান গেয়েছেন। বেশ কিছু ছবিতে প্লেব্যাক করেছেন। সবকিছু বাদ দিয়ে তিনি প্রকাশনায় মনোযোগ দেন।

jagonews24

কাজী আনোয়ার হোসেন ১৯৩৬ সালের ১৯ জুলাই ঢাকায় জন্মগ্রহণ করেন। প্রখ্যাত বিজ্ঞানী, গণিতবিদ ও সাহিত্যিক কাজী মোতাহার হোসেনের ছেলে তিনি।

১৯৬৩ সালে কাজী আনোয়ার হোসেন প্রথমে সেগুনবাগিচায় প্রেসের ব্যবসা শুরু করেন। এর পর সেগুনবাগান নামে প্রকাশনী সংস্থা খুলেন। ১৯৬৪ সালের জুনে প্রকাশিত হয় সেগুনবাগান প্রকাশনীর প্রথম বই ‘কুয়াশা-১’। পরে প্রকাশনীর নাম পাল্টে হয় সেবা প্রকাশনী।‘বিদ্যুৎ মিত্র’ ও ‘শামসুদ্দীন নওয়াব’ ছদ্মনামেও বই লিখেছেন তিনি।

কাজী আনোয়ার হোসেন ১৯৭৪ সালে শ্রেষ্ঠ চিত্রনাট্যকার ও সংলাপ রচয়িতা হিসেবে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সাংবাদিক সমিতি (বাচসাস) পুরস্কার পান। এছাড়া ‘সিনেমা’ পত্রিকা ও জহির রায়হান চলচ্চিত্র পুরস্কারও পেয়েছেন তিনি।

এসএম/কেএসআর/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]