আয়কর মেলায় অসুস্থ করদাতারা পাচ্ছেন প্রাথমিক চিকিৎসা

নিজস্ব প্রতিবেদক প্রকাশিত: ০১:২৯ পিএম, ১৬ নভেম্বর ২০১৯
আয়কর মেলায় অসুস্থ করদাতারা পাচ্ছেন প্রাথমিক চিকিৎসা

শনিবার (১৬ নভেম্বর) বেলা সাড়ে ১১টা। আয়কর দিতে আয়কর মেলায় এসেছেন আব্দুস সাত্তার (৫০)। লাইনে দাঁড়িয়ে থাকতে থাকতেই হঠাৎ মাথাঘুরে পড়ে যান তিনি। মেলায় স্বেচ্ছাসেবকের দায়িত্বরত স্কাউট ও কর অঞ্চলের কর্মকর্তারা দ্রুতই তাকে নিয়ে যান মেলায় স্থাপিত হেল্থকেয়ারে। সেখানে কর্তবরত চিকিৎসক বুকের ব্যথা থাকায় দ্রুতই স্থানীয় হাসপাতালে পাঠানোর ব্যবস্থা করেন।

‘সবাই মিলে দেব কর, দেশ হবে স্বনির্ভর’ স্লোগানকে সামনে রেখে করসেবা প্রদান ও কর সচেতনতা বাড়াতে প্রতিবছরের মতো এবারও আয়কর মেলার আয়োজন করছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। রাজধানীর অফিসার্স ক্লাবে বসা সপ্তাহব্যাপী এ মেলা চলবে ২০ নভেম্বর পর্যন্ত।

এবারের আয়কর মেলায় আয়কর দিতে আসা করদাতাদের জন্য ফ্রি চিকিৎসা সেবা দিচ্ছে ইউনিভার্সেল মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল।

করদাতা কিংবা কোনো দর্শনার্থী যদি মেলায় এসে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন তাদের জন্য প্রাথমিক চিকিৎসাপত্র ও ওষুধ দিচ্ছে হাসপাতালটি।

শনিবার দুপুরে মেলায় গিয়ে দেখা যায়, কর অঞ্চলের মিডিয়া কর্নারের পাশেই হেল্থ কেয়ার বুথ বসানো হয়েছে। সেখানে প্রাথমিক অসুস্থতা নিয়ে আসা সেবাগ্রহীতাদের দেয়া হচ্ছে চিকিৎসাপত্র।

একজন চিকিৎসক ও তিনজন নার্স মেলা শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত চিকিৎসা সেবা দিচ্ছেন।

সেখানে কথা হয় হেল্থকেয়ারের চিকিৎসক মো. আজিজুর রহমান রাজনের সঙ্গে। তিনি বলেন, জ্বর, সর্দি, গ্যাস্ট্রিক, পেটেব্যথা, মাথাব্যথা, মাথাঘোরা, বমির প্রাথমিক চিকিৎসা এখানেই দেয়া হচ্ছে। বিনামূল্যে দেয় হচ্ছে ওষুধও। তবে হার্টের সমস্যা, ডায়াবেটিসের সমস্যা থাকলে পরামর্শপত্র দিয়ে তাদের জরুরি ভিত্তিতে আমাদের ইউনিভার্সেল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের তত্ত্বাবধানে অ্যাম্বুলেন্সে করে নিকটস্থ হাসপাতালে পাঠানো হচ্ছে।

মেলার প্রথম দিনে ৫৪ জনকে, দ্বিতীয় দিন ৪৭ জন ও আজ চলতি তৃতীয় দিনে ২৯ জনকে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

এনবিআর জানিয়েছে, এবারের মেলায় হেল্প ডেস্ক, রিটার্ন বুথ ও ই-পেমেন্টের সংখ্যা বাড়ানো হয়েছে। সেই সঙ্গে বাড়ানো হয়েছে ই-টিআইএন জোন ও রিটার্ন পূরণের স্থান। মেলা প্রাঙ্গণে এবার ৩৯টি হেল্প ডেস্ক করা হয়ছে, যা গত বছর ছিল ৩৩টি। রিটার্ন বুথ রাখা হয়েছে ৫২টি, যা গত বছর ছিল ৪৯টি। আর ই-পেমেন্ট বুথ করা হয়েছে ১৪টি, যা গত বছর ছিল ১টি।

জেইউ/এসএইচএস/এমএস

সর্বশেষ - অর্থনীতি

জাগো নিউজে সর্বশেষ

জাগো নিউজে জনপ্রিয়