ভিডিও EN
  1. Home/
  2. অর্থনীতি

পতনেই শেয়ারবাজার, দাম বাড়ার সর্বোচ্চ সীমায় সাত কোম্পানি

নিজস্ব প্রতিবেদক | প্রকাশিত: ০৪:৪৪ পিএম, ২৭ জানুয়ারি ২০২২

সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস বৃহস্পতিবার দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) এবং অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) মূল্যসূচকের পতন হয়েছে। এই পতনের বাজারেই দাম বাড়ার সর্বোচ্চ সীমা স্পর্শ করেছে সাত কোম্পানির শেয়ার।

বৃহস্পতিবার ডিএসইতে লেনদেন শুরু হয় বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বাড়ার মাধ্যমে। ফলে লেনদেন শুরু হতেই প্রধান মূল্যসূচক ডিএসই-এক্স ১০ পয়েন্ট বেড়ে যায়। লেনদেনের ১৯ মিনিটের মাথায় সূচকটি ২৩ পয়েন্ট বেড়ে যায়।

লেনদেনের শুরুতে দেখা দেওয়া এই ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা প্রথম আড়াই ঘণ্টার লেনদেনে অব্যাহত থাকে। একপর্যায়ে দুপুর ১২টা ১৮ মিনিটে ডিএসইর প্রধান সূচক ২৮ পয়েন্ট বেড়ে যায়। কিন্তু দুপুর ১টার পর থেকে বদলে যেতে থাকে চিত্র। দরপতন হতে থাকে একের পর এক প্রতিষ্ঠানের। লেনদেনের শেষ পর্যন্ত পতনের এই ধারা অব্যাহত থাকে। ফলে সূচকের পতন দিয়েই দিনের লেনদেন শেষ হয়।

দিনের লেনদেন শেষে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসই-এক্স আগের দিনের তুলনায় ৪ পয়েন্ট কমে ৭ হাজার ২৭ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। অন্য দুই সূচকের মধ্যে বাছাই করা ভালো কোম্পানি নিয়ে গঠিত ডিএসই-৩০ সূচক ৯ পয়েন্ট কমে ২ হাজার ৬০২ পয়েন্টে অবস্থান করছে। আর ডিএসই শরিয়াহ্ সূচক আগের দিনের তুলনায় ৪ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ৪৯৯ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

দিনভর ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ১ হাজার ২১৯ কোটি টাকা। আগের দিন লেনদেন হয় ১ হাজার ১১৫ কোটি ৭৮ লাখ টাকা। সে হিসাবে লেনদেন বেড়েছে ১০৩ কোটি ২২ লাখ টাকা।

ডিএসইতে দাম বাড়ার তালিকায় নাম লিখিয়েছে ১৪২টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট। বিপরীতে দাম কমেছে ১৮৪টির। আর ৫৫টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে। দাম বাড়ার তালিকায় স্থান করে নেওয়া কোম্পানিগুলোর মধ্যে সাতটির শেয়ার দিনের দাম বাড়ার সর্বোচ্চ সীমা স্পর্শ করে।

এই সাত কোম্পানির মধ্যে রয়েছে- বাংলাদেশ বিল্ডিং সিস্টেম, ইউনিয়ন ব্যাংক, বাংলাদেশ শিপিং করপোরেশন, ইউনিয়ন ইন্স্যুরেন্স, বিডি থাই ফুড, কুইন সাউথ টেক্সটাইল এবং বেঙ্গল উইন্ডসর থার্মোপ্লাস্টিকস। এই প্রতিষ্ঠানগুলোর শেয়ার দিনের সর্বোচ্চ দামে লেনদেন হলেও একপর্যায়ে বিক্রয় আদেশের ঘর শূন্য হয়ে পড়ে।

এদিকে ডিএসইতে টাকার অঙ্কে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে বেক্সিমকোর শেয়ার। কোম্পানিটির ৬১ কোটি ১৩ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। দ্বিতীয় স্থানে থাকা বাংলাদেশ শিপিং করপোরেশনের ৬১ কোটি টাকার লেনদেন হয়েছে। ৫০ কোটি ৭৯ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনের মাধ্যমে তৃতীয় স্থানে রয়েছে কুইন সাউথ টেক্সটাইল।

এছাড়া ডিএসইতে লেনদেনের দিক থেকে শীর্ষ দশ প্রতিষ্ঠানের তালিকায় রয়েছে- মালেক স্পিনিং, আরএকে সিরামিক, ফু-ওয়াং ফুড, পাওয়ার গ্রিড, সাইফ পাওয়ার টেক, ন্যাশনাল লাইফ ইন্স্যুরেন্স এবং এশিয়া ইন্স্যুরেন্স।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক মূল্যসূচক সিএএসপিআই কমেছে ১১ পয়েন্ট। বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ৪৮ কোটি ৫ লাখ টাকা। লেনদেনে অংশ নেওয়া ৩১২টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ১২২টির দাম বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ১৪৭টির এবং ৪৩টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

এমএএস/এমএইচআর/জিকেএস