EN
  1. Home/
  2. আন্তর্জাতিক

টাইগ্রে নিয়ে মধ্যস্থতার প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান ইথিওপিয়ার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | প্রকাশিত: ০৬:৪৭ পিএম, ২৫ নভেম্বর ২০২০

দেশের উত্তরের টাইগ্রে অঞ্চলের সঙ্গে সরকারের চলমান সংঘাত নিরসনে আন্তর্জাতিক শক্তিগুলোর মধ্যস্থতার প্রস্তাব বিবৃতি দিয়ে জোরালোভাবে প্রত্যাখ্যান করেছেন আফ্রিকার দেশ ইথিওপিয়ার প্রধানমন্ত্রী আবি আহমেদ।

টাইগ্রে নিয়ে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের উদ্বেগকে তার দেশ প্রশংসা করে জানিয়ে আবি আহমেদ বলেছেন, এ নিয়ে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছে আবেদন না জানানো পর্যন্ত তারা যেন অপেক্ষারত (স্ট্যান্ডবাই) থাকে।

প্রধানমন্ত্রীর দফতরের বিবৃতি অনুযায় তিনি বলেন, ‘তবে আমি জোর দিয়ে বলতে চাই, ইথিওপিয়া তার আইন ও আন্তর্জাতিক বাধ্যবাধকতা অনুসারে এই পরিস্থিতি সমাধান করতে খুব সক্ষম এবং করতে ইচ্ছুকও।’

কিছুদিন ধরে দ্বন্দ্ব সংঘাতে অশান্ত টাইগ্রে অঞ্চলের নেতাদের আত্মসমর্পণের জন্য সরকারের বেধে দেয়া তিন দিনের সময়সীমা পেরোনোর আগে প্রধানমন্ত্রী আবি আহমেদ এমন বিবৃতি দিয়ে সরকারের অবস্থান জানালেন।

ওই সময়সীমা পার হওয়ার পরও টাইগ্রে অঞ্চলের নেতারা আত্মসমর্পণ না করলে অঞ্চলটির রাজধানী শহর মেকেল্লেতে সামরিক বাহিনীর সেনাদের হামলা করার নির্দেশ দেয়া হবে বলে হুমকি দিয়ে রেখেছে সরকার।

ট্রাইগ্রের সংঘাত গোটা পূর্ব আফ্রিকার ছড়িয়ে পড়ার ঝুঁকি তৈরির মুখে এই সংঘাত বন্ধে মধ্যস্থতার প্রস্তাব বাড়তে শুরু করেছে। ইতোমধ্যে হাজারো মৃত্যু ছাড়া অনেক মানুষ তাদের ঘরবাড়ি ছেড়ে পালাতে বাধ্য হয়েছেন।

সংঘাতকবলিত অঞ্চলটির ক্ষমতাসীন দল টাইগ্রে পিপলস লিবারেশন ফ্রন্টের (টিআরএলএফ) নেতা মঙ্গলবার সরকারি সময়সীমা প্রত্যাখ্যান করে বলেছেন, মাতৃভূমিকে রক্ষায় তার লোকজন জীবন দিতেও প্রস্তুত আছে।

উত্তরাঞ্চলে কেন্দ্রীয় সরকারের দফতরে হামলা ও দেশকে অস্থিতিশীল করার অভিযোগে নোবেলজয়ী প্রধানমন্ত্রী আবি আহমেদের নির্দেশে গত ৪ নভেম্বর টিআরএলএফ এর বিরুদ্ধে অভিযান শুরু করে সামরিক বাহিনী।

প্রতিবেশী ইরিত্রিয়ার সঙ্গে সংঘাত নিরসনের স্বীকৃতিস্বরুপ গত বছর শান্তিতে নোবেলজয়ী ৪৪ বছর বয়সী আবি আহমেদ বলছেন, গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়াকে ধ্বংস করতে ইথিওপিয়া জুড়ে সহিংস হামলা চালাচ্ছে টিপিএলএফ।

এসএ/এমকেএইচ