EN
  1. Home/
  2. আইন-আদালত

গুলশানে দুই বোন : পাওয়ার অব অ্যাটর্নি প্রশ্নে ব্যাংকের নথি তলব

নিজস্ব প্রতিবেদক | প্রকাশিত: ০৯:০০ পিএম, ২১ জানুয়ারি ২০২১

রাজধানীর গুলশানের বাসিন্দা প্রয়াত মোস্তফা জগলুল ওয়াহিদের দুই মেয়েকে বাড়ি ফিরিয়ে নেয়ার পর এবার তাদের বাবার অ্যাকাউন্টের পাওয়ার অব অ্যাটর্নির বিষয়ে সিটি ব্যাংকের মূল নথি তলব করেছেন হাইকোর্ট। আগামী ৩ ফেব্রুয়ারির মধ্যে এসব নথি জমা দিতে ব্যাংককে বলেছেন আদালত। ওই দিন এ বিষয়ে শুনানির জন্যও রয়েছে।

তাদের সৎমা অঞ্জু কাপুরের পাওয়ার অব অ্যাটর্নি জালিয়াতির অভিযোগের বিষয়টি নিয়ে সন্দেহ থাকায় মূল নথি তলবের আর্জি জানানোর পর বৃহস্পতিবার (২১ জানুয়ারি) হাইকোর্টের বিচারপতি নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি মহি উদ্দিন শামীমের সমন্বয়ে গঠিত ভার্চুয়াল বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে এদিন রাষ্ট্রপক্ষের শুনানিতে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল একেএম আমিন উদ্দিন মানিক। তার সঙ্গে ছিলেন সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল মাহজাবীন রব্বানী ও আন্না খানম কলি। আদালতে দুই বোনের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী মনজিল মোরসেদ।

এর আগে গত ৯ নভেম্বর গুলশানে বাড়ির সামনে অবস্থান করে আলোচনায় আসা দুই বোন মুশফিকা ও মোবাশ্বেরার বাবা প্রয়াত মোস্তফা জগলুল ওয়াহিদের সব ব্যাংক হিসাবের লেনদেন পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত বন্ধ থাকবে বলে আদেশ দেন হাইকোর্ট।

একইসঙ্গে গুলশান-২ এর ৯৫ নম্বর সড়কের ওই বাড়িতে থাকা জিনিসপত্র কোনো পক্ষ বাইরে নিতে পারবে না এবং দুই বোনের নিরাপত্তা অব্যাহত রাখতে গুলশান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে (ওসি) নির্দেশ দেয়া হয়।

‘গুলশানে বাড়ির সামনে দুই বোনের অবস্থান’ শিরোনামে গত ২৫ অক্টোবর জাতীয় দৈনিকে প্রতিবেদন ছাপা হয়। এটিসহ এ বিষয়ে গণমাধ্যমে আসা প্রতিবেদন বিবেচনায় নিয়ে ২৬ অক্টোবর হাইকোর্টের একই বেঞ্চ স্বপ্রণোদিত রুল জারিসহ আদেশ দেন।

আদালতের আদেশ অনুসারে সেদিন রাতে পুলিশ দুই বোনকে ওই বাড়িতে তুলে দেয় এবং নিরাপত্তার ব্যবস্থা করে।

এরপর ৩ নভেম্বর হাইকোর্ট দুই বোন এবং তাদের প্রয়াত বাবার দ্বিতীয় স্ত্রী আঞ্জু কাপুরের সম্পত্তি দাবির সপক্ষে কাগজপত্র হলফনামা আকারে ৯ নভেম্বরের মধ্যে আদালতে দাখিল করতে নির্দেশ দেন। এ অনুসারে বিষয়টি ওই দিন শুনানির জন্য ওঠে।

এরপর গত ১২ জানুয়ারি রাজধানীর গুলশানের বাসিন্দা প্রয়াত মোস্তফা জগলুল ওয়াহিদের দুই মেয়ের বাড়ির ঘটনায় তাদের সৎমা অঞ্জু কাপুরের পাওয়ার অব অ্যাটর্নি জালিয়াতির অভিযোগ পুলিশকে তদন্তের নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে সিটি ব্যাংকের গুলশান এভিনিউ শাখা থেকে এক কোটি ৪০ লাখ টাকা উত্তোলনের বিষয়টিও গুলশান থানাকে তদন্ত করার নির্দেশ দেন আদালত। তারই ধারাবাহিতায় আজ শুনানির জন্য আসে।

এফএইচ/ইএ/জিকেএস