প্রয়োজনে লিবিয়ায় আটকে পড়া বাংলাদেশিদের ফিরিয়ে আনবে সরকার

কূটনৈতিক প্রতিবেদক প্রকাশিত: ০৩:৫৩ পিএম, ২১ এপ্রিল ২০১৯
প্রয়োজনে লিবিয়ায় আটকে পড়া বাংলাদেশিদের ফিরিয়ে আনবে সরকার

লিবিয়ায় আটকে পড়া বাংলাদেশিদের ফিরিয়ে আনতে কাজ করছে সরকার। এ কাজে সব রকমের সহযোগিতা দেয়ার কথা জানিয়েছে আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা আইওএম।

রোববার (২১ এপ্রিল) প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে ‘লিবিয়ায় আটকে পড়া বাংলাদেশিদের ফিরিয়ে আনা প্রসঙ্গে’ প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও আন্তর্জাতিক অভিবাসী সংস্থার (আইওএম) সমন্বয়ে আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত হয়।

এতে সভাপতিত্ব করেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব রৌনক জাহান। তিনি বলেন, ‘সর্বোচ্চ নিরাপত্তা নিশ্চিত করার বিষয়ে সরকার আন্তরিকভাবে কাজ করছে। প্রয়োজন হলে তাদের নিরাপদে দেশে ফিরিয়ে আনা হবে এবং দেশে পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করা হবে।’

এ প্রসঙ্গে বৈঠকে উপস্থিত আইওএম প্রতিনিধি জানান, লিবিয়ায় অবস্থানরত বাংলাদেশিদের প্রয়োজনীয় সব রকম সহযোগিতা দেয়ার জন্য এ সংস্থা প্রস্তুত আছে।

সম্প্রতি ত্রিপলির নিয়ন্ত্রণ গ্রহণের লক্ষ্যে লিবিয়ার পূর্বাঞ্চলীয় জেনারেল হাফতার যুদ্ধ ঘোষণা করায় সেখানে অস্থিতিশীল পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। ত্রিপলি ও আশপাশের শহরগুলোতে ৬০টি পরিবারসহ মোট ৫ হাজার বাংলাদেশি অবস্থান করছেন।

সভায় কূটনৈতিক যোগাযোগের সূত্র উল্লেখ করে জানানো হয়, দুটি বিবাদমান গ্রুপের সংঘর্ষে বর্তমানে লিবিয়ার কোনো কোনো অংশে যুদ্ধাবস্থা বিরাজ করছে। এ পরিস্থিতিতে সেখানে অবস্থানরত বাংলাদেশিদের নিরাপত্তা বিধান ও প্রয়োজন বোধে ফিরিয়ে আনার লক্ষ্যে ত্রিপলিস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসে ৩টি হটলাইন ও কন্ট্রোল রুম খোলা হয়েছে।

সভায় উপস্থিত ছিলেন ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের মহাপরিচালক গাজী মোহাম্মদ জুলহাস, এনডিসি, জনশক্তি, কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোর মহাপরিচালক মো. সেলিম রেজা, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ড. আহমেদ মুনিরুছ সালেহীন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম-সচিব ড. মো. বশিরুল আলম, বহিরাগমন ও পাসপোর্ট অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক সেলিনা বানু, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক এএফএম আমিনুল ইসলাম ও আইওএম’র কান্ট্রি ডিরেক্টর মি. জর্জিওসহ অন্যান্য প্রতিনিধিরা।

জেপি/এনডিএস/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :

এই বিভাগের সর্বশেষ