ভিকারুননিসার অধ্যক্ষ নিয়োগ নিয়ে নাটকীয়তা

নিজস্ব প্রতিবেদক প্রকাশিত: ০৮:৩১ এএম, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯
ভিকারুননিসার অধ্যক্ষ নিয়োগ নিয়ে নাটকীয়তা

রাজধানীর ঐতিহ্যবাহী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজে নতুন অধ্যক্ষ নিয়োগ নিয়ে নাটকীয়তা সৃষ্টি হয়েছে। নতুন অধ্যক্ষ নিয়োগের বৈধতা নিয়ে ইতোমধ্যে আদালতে রিট করেছেন এ প্রতিষ্ঠানের গভর্নিংবডির সাবেক সদস্য আইনজীবী অ্যাডভোকেট ইউনুছ আলী আকন্দ। তবে শিক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, আইনগতভাবেই অধ্যক্ষ নিয়োগ দেয়া হয়েছে। তাই আইনি প্রক্রিয়ায় লড়তে প্রস্তুত তারা।

জানা গেছে, ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ হিসেবে ফওজিয়া রেজওয়ানকে নিয়োগের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে দায়ের করা রিটে তার নিয়োগ স্থগিত চাওয়া হয়েছে। সোমবার সুপ্রিম কোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় আইনজীবী অ্যাডভোকেট ইউনুছ আলী আকন্দ এ রিট দায়ের করেন।

হাইকোর্টের বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. খায়রুল আলমের বেঞ্চে সোমবার রিট আবেদনটির শুনানি হয়। এতে আজ (মঙ্গলবার) বেলা ১১টা পর্যন্ত নতুন অধ্যক্ষের নিয়োগ স্থগিত রেখেছেন হাইকোর্ট।

এদিকে ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজে বৈধ প্রক্রিয়ায় একজন বিসিএস (শিক্ষা) ক্যাডারকে অধ্যক্ষ হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সিনিয়র সচিব মো. সোহরাব হোসাইন। তিনি জাগো নিউজকে বলেন, ভিকারুননিসায় অধ্যক্ষ নিয়োগে কোনো ধরনের আইন অমান্য করা হয়নি। এ প্রক্রিয়ায় ঢাকার লালমাটিয়া মহিলা কলেজ ও ঢাকা সেন্ট্রাল ওমেন্স কলেজে অধ্যক্ষ নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, রাজধানীর সুনামধারী এ প্রতিষ্ঠানে দীর্ঘদিন ধরে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ দিয়ে চলছিল। এ কারণে ভর্তি-বদলি বাণিজ্য থেকে শুরু করে নানা অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া যায়। সম্প্রতি অধ্যক্ষ নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু করা হলেও সেখানে নানা অনিয়মের অভিযোগে নিয়োগ প্রক্রিয়া বাতিল করা হয়। প্রতিষ্ঠানটি যেন ভালোভাবে পরিচালিত হয় তাই একজন দক্ষ ব্যক্তিকে বৈধ প্রক্রিয়ায় নিয়োগ দেয়া হয়েছে। কেউ এ বিষয়ে আইনি প্রক্রিয়ায় গেলে শিক্ষা মন্ত্রণালয় তা মোকাবিলা করতে প্রস্তুত।

তথ্যমতে, গত ১৫ সেপ্টেম্বর ঢাকার সবুজবাগ সরকারি মহাবিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব পালনরত মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের (মাউশি) বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ফওজিয়া রেজওয়ানকে ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ হিসেবে নিয়োগ দেয় সরকার। সোমবার তিনি কর্মস্থলে যোগদান করে দায়িত্ব বুঝে নেন বলে প্রতিষ্ঠান সূত্রে জানা গেছে। যোগদানের প্রথম দিনেই অধ্যক্ষের নিয়োগ নিয়ে আদালতে রিট করা হয়েছে।

এমএইচএম/বিএ/পিআর

সর্বশেষ - জাতীয়

জাগো নিউজে সর্বশেষ

জাগো নিউজে জনপ্রিয়