প্রতিদিন ৫০০ কেজি মাছ কাটেন পিন্টু

মনিরুজ্জামান উজ্জ্বল প্রকাশিত: ০১:২৮ পিএম, ১১ নভেম্বর ২০১৯

বিশাল সাইজের ধারালো বঁটি দিয়ে বিরতিহীন কৈ মাছ কেটে চলছেন। তার পাশেই বেশ বড় সাইজের ডজন খানেক রুই-কাতলা পড়ে আছে। কৈ মাছ কাটা শেষে ওগুলো কাটবেন। কৈ মাছের আগে কাটেন ৫০ কেজি ইলিশ। দ্রুতগতিতে তার মাছ কাটা দেখতে আশপাশে জটলা জমে আছে।

বলছিলাম পিন্টু নামের এক যুবকের কথা। মাছ কাটায় পারদর্শিতার জন্য ২৫ বছর বয়সী এই যুবককে রাজধানীর কারওয়ানবাজার মাছের আড়তের সবাই চেনে। মাছ কাটাকে তিনি পেশা হিসেবে গ্রহণ করেছেন। কারওয়ানবাজার মাছের আড়তের বাইরে ফ্লাইওভারের নিচে বসেন তিনি।

এ প্রতিবেদকের সঙ্গে আলাপকালে পিন্টু জানান, স্প্রিংয়ের পাত দিয়ে বিশেষভাবে তৈরি বঁটি দিয়ে দ্রুত মাছ কাটতে পারেন। গত চার-পাঁচ বছর মাছ কাটতে কাটতে দ্রুত হাত চালানোর অভ্যাস হয়ে গেছে তার। দুই চোখ বন্ধ করেও তিনি অনায়াসে মাছ কাটতে পারেন! মাছ কাটার ফাঁকে ফাঁকে তিনি চায়ের কাপে চুমুক ও ধূমপানও সেরে নেন।

pintu

আয়-রোজগার কেমন জানতে চাইলে পিন্টু বলেন, ‘আল্লাহর রহমতে আয়-রোজগার বেশ ভালো। প্রতি কেজি মাছ কাটাবাবদ ক্রেতার কাছ থেকে ১০ থেকে ২০ টাকা নেই। দ্রুত কাটতে পারি বলে অনেকেই আমার কাছে মাছ কাটতে আসেন।’

প্রতিদিন কত কেজি মাছ কাটেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, সব দিন সমপরিমাণ মাছ কাটা হয় না। তবে গড়ে প্রতিদিন ৪০০-৫০০ কেজি মাছ কাটি।

কারওয়ানবাজার মাছের আড়তের বাইরে পিন্টুর মতো আরও অনেকেই প্রতিদিন মাছ কাটাকে পেশা হিসেবে গ্রহণ করেছেন।

এমইউ/জেডএ/পিআর

সর্বশেষ - জাতীয়

জাগো নিউজে সর্বশেষ

জাগো নিউজে জনপ্রিয়