পরিবেশ দূষণ নিয়ন্ত্রণে প্রযুক্তির ব্যবহার অপরিহার্য

নিজস্ব প্রতিবেদক প্রকাশিত: ০৬:১৪ পিএম, ০৫ ডিসেম্বর ২০১৯
পরিবেশ দূষণ নিয়ন্ত্রণে প্রযুক্তির ব্যবহার অপরিহার্য

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ব্যবহার করে বিশ্বজুড়ে পরিবেশ দূষণ রোধ, প্রাকৃতিক সম্পদ রক্ষা ও এর সদ্ব্যবহার সম্ভব হচ্ছে। বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে এবং দুর্নীতি দমন, খাদ্যে ভেজাল রোধ ও পরিবেশ দূষণ নিয়ন্ত্রণে প্রযুক্তির ব্যবহার একান্ত অপরিহার্য বলে মনে করেন জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘরের মহাপরিচালক মো. মুনীর চৌধুরী।

বৃহস্পতিবার (৫ ডিসেম্বর) চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড উপজেলায় ৪১তম জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সপ্তাহের সমাপনী অনুষ্ঠানে এ মত দেন তিনি।

বিজ্ঞান জাদুঘর ও সীতাকুণ্ড উপজেলার যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে ৪৬টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান অংশগ্রহণ করে এবং তাদের উদ্ভাবিত প্রযুক্তির প্রদর্শন করে।

সীতাকুণ্ড উপজেলা প্রাকৃতিক এবং সমুদ্রসম্পদে সমৃদ্ধ একটি জনপথ। তা বর্তমানে দূষণের শিকার বলে উল্লেখ করেন জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘরের মহাপরিচালক। মুনীর চৌধুরী বলেন, ‘এ থেকে রক্ষা পেতে আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করতে হবে। প্রয়োজনে ড্রোন ব্যবহার করে পাহাড় কাটার ঘটনা উদঘাটন করতে হবে। শিপইয়ার্ডের তেল দূষণের ঘটনা উদঘাটন এবং দূষণ নিয়ন্ত্রণে প্রযুক্তির মাধ্যমে নজরদারি নিশ্চিত করতে হবে।’

শিশু-কিশোরদের মাদক, মোবাইল ও বিভিন্ন ক্ষতিকর আসক্তি থেকে মুক্ত রাখতে নিয়মিত পড়াশোনা ও বিজ্ঞান চর্চা বাড়াতে হবে। নৈতিকতা দিয়ে জীবন গড়ে তুলতে হবে। এ লক্ষ্যে ঢাকার জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর নতুন প্রকল্প গ্রহণ করেছে বলেও জানান মুনীর চৌধুরী।

তিনি জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘরকে শিক্ষা সফরের আওতায় আনার জন্য স্থানীয় প্রশাসন, জনপ্রতিনিধি এবং শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কর্তৃপক্ষকে আহ্বান জানান।

অনুষ্ঠান শেষে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির উদ্ভাবনের জন্য ১৬টি প্রতিষ্ঠান ও সংস্থা এবং ১০ জন শিক্ষার্থীকে তাদের উদ্ভাবনের জন্য পুরস্কার প্রদান করা হয়।

অনুষ্ঠানে সীতাকুণ্ড উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মিল্টন রায়, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোহাম্মাদ মামুন এবং সীতাকুণ্ড উপজেলা প্রেস ক্লাবের সভাপতি সৌমিত্র চক্রবর্তী প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

পিডি/এসআর/পিআর

সর্বশেষ - জাতীয়

জাগো নিউজে সর্বশেষ

জাগো নিউজে জনপ্রিয়