EN
  1. Home/
  2. জাতীয়

সিরিয়াফেরত ‘জঙ্গি’ শাখাওয়াত ফের তিন দিনের রিমান্ডে

নিজস্ব প্রতিবেদক | প্রকাশিত: ০৮:৩৩ পিএম, ১৫ জুন ২০২১

চট্টগ্রাম নগরের খুলশী এলাকা থেকে গ্রেফতার আনসার আল ইসলামের সিরিয়াফেরত জঙ্গি মো. শাখাওয়াত আলী ওরফে লালুর (৪০) আরও তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

মঙ্গলবার (১৫ জুন) চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মেহনাজ রহমানের আদালত এ আদেশ দেন। এর আগে গত ১২ জুন তাকে তিন দিনের রিমান্ডের আদেশ দিয়েছিলেন আদালত।

বিষয়টি জাগো নিউজকে নিশ্চিত করেন চট্টগ্রাম নগর পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের উপ-পরিদর্শক (এসআই) রাসিব খান।

তিনি বলেন, তিন দিনের রিমান্ড শেষে আসামি শাখাওয়াত আলীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আরও পাঁচ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়। শুনানি শেষে আদালত তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন।

শুক্রবার (১১ জুন) দিবাগত রাতে শাখাওয়াত আলীকে দক্ষিণ খুলশী আবাসিকের আহলে হাদিস জামে মসজিদ এলাকা থেকে গ্রেফতার করে নগর পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট। এ সময় তার কাছ থেকে বিভিন্ন জিহাদি কাগজপত্র, একটি পাসপোর্ট, একটি মোবাইল ফোন, ট্যাব ও মিনি নোটবুক জব্দ করা হয়।

পুলিশ জানায়, ২০১২ সালে তার ভায়রা ভাই আরিফ ও মামুনের অনুপ্রেরণায় জঙ্গি কার্যক্রমে সম্পৃক্ত হন শাখাওয়াত। পরবর্তীতে তাদের সংগঠনের নেতা মোয়াজ (চাকরিচ্যুত মেজর জিয়া), মনসুরাবাদ এলাকার হুজুর শফিক এবং লালখান বাজার এলাকার এসির দোকানে কর্মচারী ওমর ফারুকের সহায়তায় দেশের বিভিন্ন স্থানে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন আনসার আল ইসলামের সাংগঠনিক কার্যক্রম পরিচালনা করেন তিনি।

২০১৭ সালে শাখাওয়াত ‘জিহাদে’ অংশ নিতে তুরস্ক যান। সেখান থেকে সীমান্ত অতিক্রম করে সিরিয়ায় প্রবেশ করে দীর্ঘ ছয় মাস ‘হায়াত তাহরীর আরশাম’ নামে একজনের কাছে ভারি অস্ত্র চালানোর প্রশিক্ষণ নেন। এরপর তিনি সিরিয়ার ইদলিব এলাকায় আইএসয়ের হয়ে যুদ্ধে অংশ নেন। যুদ্ধশেষে তিনি বিভিন্ন দেশ ঘুরে ইন্দোনেশিয়ায় বসবাস করেন। সেখানেও তিনি জিহাদী কার্যক্রম পরিচালনা করেন। সর্বশেষ গত ২২ মার্চ শাখাওয়াত দেশে আসেন। এসেই তিনি পুনরায় জঙ্গি সংগঠনের কার্যক্রম শুরু করেন।

মিজানুর রহমান/এমআরআর/এমকেএইচ