EN
  1. Home/
  2. রাজনীতি

মানুষ খালেদা-তারেকের দিকে তাকিয়ে আছে : সেলিমা

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক | প্রকাশিত: ০৩:০৬ পিএম, ২৫ নভেম্বর ২০২০

বর্তমান সরকারের উৎখাতের মধ্য দিয়ে গণতন্ত্র ও ভোটাধিকার ফিরিয়ে আনতে বাংলাদেশের মানুষ আজ খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের দিকে তাকিয়ে আছেন বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য বেগম সেলিমা রহমান।

তিনি বলেছেন, ‘বাংলাদেশের মানুষ তাকিয়ে আছে দুটি নামের দিকে। একটি হলো দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া, আর আরেকটি হচ্ছে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। যে তারেক রহমান বাংলাদেশের মানুষকে সংগঠিত করতে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন।’

বুধবার (২৫ নভেম্বর) জাতীয় প্রেসক্লাবে জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ‘করোনা প্রতিরোধে জনসচেতনতা ও স্বাস্থ্যসেবা কর্মসূচি’তে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

সেলিমা রহমান বলেন, ‘আজকে সময় এসেছে জনগণকে বাঁচাবার, তাই জনগণকে বাঁচাতে হলে আমাদের সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। আমরা তখনই সফল হবো যখন আমরা সবাইকে ঐক্যবদ্ধ করতে পারবো, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে সত্যিকার অর্থে মুক্ত করে নিয়ে আসতে পারবো এবং ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে দেশে ফিরিয়ে নিয়ে আসতে পারবো।’

তিনি বলেন, ‘আজকে আমরা কোন অবস্থায় আছি। বর্তমান সরকার একটা অবৈধ সরকার। যে সরকার করোনার সময়ে জনগণকে কোনো সাহায্য-সহযোগিতা করে না। বরং বর্তমান অবৈধ সরকার এটাকে বাণিজ্য হিসেবে নিয়ে ব্যবসায়ীদের দুর্নীতির ব্যবস্থা করে দিয়েছেন।’

সরকার প্রতিটি গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানকে ধ্বংস করে দিয়েছে মন্তব্য করে বিএনপির নীতিনির্ধারক বলেন, ‘গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠানের মধ্যে প্রথম হলো নির্বাচনী ব্যবস্থা সেটিকে বর্তমান অবৈধ সরকার ধ্বংস করে দিয়েছে। জনগণের এখন নিজের পছন্দমত ভোট দেয়ার অধিকার নেই। এভাবে দেশ আর চলতে পারে না।’

সেলিমা রহমান বলেন, ‘বেগম জিয়া বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় নেত্রী। তাকে আজকে বর্তমান অবৈধ সরকার জোর করে কারাগারে অন্তরীণ করে রেখে গৃহবন্দি করে রেখেছে। তাকে রাজনীতি করতে সুযোগ দেয়া হচ্ছে না। কারণ বেগম জিয়া বাইরে থাকলে তাদের যে লুটের রাজনীতি এটি করা সম্ভব হবে না। তাই তারা বেগম খালেদা জিয়াকে জোর করে গৃহবন্দি করে রেখেছেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘করোনাভাইরাস যখন শুরু হয় তখন বর্তমান সরকারের অনেক অবৈধ মন্ত্রী-এমপিরা বলেছিলেন আমরা করোনার চেয়ে শক্তিশালী। অথচ করোনার চেয়েও শক্তিশালী এই সরকার করোনা আক্রান্ত ব্যক্তিদের জন্য কোনো কাজই করতে পারেনি। তারা করোনা আক্রান্ত ব্যক্তিদের ফেলে দিয়েছিল মৃত্যুর দিকে। আক্রান্ত ব্যক্তিরা সঠিক চিকিৎসা পায়নি, চিকিৎসকরা পায়নি তাদের সুরক্ষা-সামগ্রী। আক্রান্ত ব্যক্তিরা চিকিৎসার জন্য ছুটে চলেছেন দেশের এক প্রান্ত থেকে আরেক প্রান্তে। তারপরও তারা সঠিক চিকিৎসা পায়নি। এমন সময়ে আলোকবর্তিকা হিসেবে মানুষকে স্বাস্থ্যসেবা দিয়েছেন জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশন।’

জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক অধ্যাপক ডা. ফরহাদ হালিম ডোনারের সার্বিক তত্ত্বাবধানে ও আহ্বায়ক ডা. পারভেজ রেজা কাকনের সভাপতিত্বে ও কৃষিবিদ শামীমুর রহমান শামীমের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, হাবিব-উন-নবী খান সোহেল, খায়রুল কবির খোকন ও ডা. এরফানুল হক সিদ্দিকী প্রমুখ।

এ সময় মেডিসিন, হৃদরোগ, বক্ষব্যাধি, শিশুরোগ, শিশু সার্জারি, গ্যাস্ট্রো এন্ট্রালোজি, পেইন ম্যানেজমেন্ট, অর্থপোডিক্স, চর্ম ও যৌন, নাক-কান-গলা, চক্ষু বিজ্ঞানসহ বিভিন্ন রোগের বিভিন্ন সমস্যায় শতাধিক অসহায় ও দরিদ্র রোগীদের ফ্রি চেকআপ ও ওষুধ প্রদান করা হয়।

কেএইচ/এআরএ/এমকেএইচ