সতীর্থের গায়ে হাত তুললেন রাজিব : ঘটনার সূত্রপাত কীভাবে?

বিশেষ সংবাদদাতা প্রকাশিত: ০১:৩২ পিএম, ১৮ নভেম্বর ২০১৯
সতীর্থের গায়ে হাত তুললেন রাজিব : ঘটনার সূত্রপাত কীভাবে?

মাঠে কত ঘটনাই তো ঘটে। অনেক সময় ক্রিকেটাররা নিজেদের রাগ নিয়ন্ত্রণ করতে পারেন। হয়তো মনের ভুলেই আম্পায়ারের সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করেন, টুকটাক বাক-বিতণ্ডাও হয়।

তবে শাহাদাত হোসেন রাজিব জাতীয় লিগের খেলায় যেমনটা করলেন, সেটা সীমা ছাড়িয়েই গেছে। ঘটনা এখন আর মাঠে সীমাবদ্ধ নেই। বিসিবির কাছে রিপোর্ট জমা দিয়েছেন ম্যাচ রেফারি। ফলে বড় শাস্তিই অপেক্ষা করছে জাতীয় দলের সাবেক এই পেসারের।

সতীর্থ ক্রিকেটার আরাফাত সানিকে বেদম মেরেছেন রাজিব। চড় থাপ্পড় তো দিয়েছেনই। পরে লাথিও মেরেছেন। যা মাঠে থেকেই প্রত্যক্ষ্য করেছেন ম্যাচ রেফারি আখতার আহমেদ শিপার।

কিন্তু কোথা থেকে সূত্রপাত হলো এমন ঘটনার? প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, আসল ঘটনার সূত্রপাত বল ঘষা নিয়ে। ঢাকার পেসার মোহাম্মদ শহীদ ছিলেন বোলার। ফিল্ডার আরাফাত সানি ফিল্ডিং করছিলেন মিড অফে। আর শাহাদাত রাজিব ছিলেন মিড অনে। বোলারের হাতে বল দেয়ার আগে রাজিব সতীর্থ ক্রিকেটার আরাফাত সানিকে বলেন, ভালোমতো বলটা ঘষে দিতে যাতে ঔজ্জ্বল্য ঠিক থাকে।

কিন্তু আরাফাত সানি তা করতে অস্বীকৃতি জানান। তখন রাজিব এগিয়ে গিয়ে আরাফাত সানির কাছে জানতে চান, কেন বল ঘষে দেবে না? রীতিমত চার্জ করা শুরু করেন তিনি। এ নিয়ে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে আরাফাত সানিকে কষে চড় বসিয়ে দেন রাজিব। রাগ নিয়ন্ত্রণ করতে না পেরে লাথিও মারেন।

উদ্ধত রাজিবকে থামানোর চেষ্টা করেন অন্য সতীর্থরা। তবু থামানো যাচ্ছিল না। পরে তাকে জড়িয়ে ধরে ড্রেসিং রুমে পাঠিয়ে দেন তারা। সেখান থেকে সরাসরি ঢাকায় ফিরিয়ে আনা হয়েছে।

এআরবি/এমএমআর/পিআর

সর্বশেষ - খেলাধুলা

জাগো নিউজে সর্বশেষ

জাগো নিউজে জনপ্রিয়