EN
  1. Home/
  2. খেলাধুলা

ম্যাচ ফিটনেসে বড় ঘাটতি দেখছেন জেমির সহকারী

বিশেষ সংবাদদাতা | প্রকাশিত: ০৯:৪৫ পিএম, ২৮ অক্টোবর ২০২০

দুই প্রবাসী ফুটবলারের একজন তারিক রায়হান কাজী ঢাকায় এসে রয়েছেন কোয়ারেন্টাইনে। বৃহস্পতিবার ঢাকায় এসে কোয়ারেন্টাইনে যাবেন অধিনায়ক জামাল ভূ্ঁইয়াও। কোচ জেমি ডে এবং তার স্বদেশি সতীর্থদেরও স্বাস্থ্যবিধি মেনে কিছুদিন থাকতে হবে দল থেকে বিচ্ছিন্ন। নেপালের বিপক্ষে আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচ সামনে রেখে জাতীয় ফুটবল দলের যে অনুশীলন শুরু হয়েছে তা পূর্ণতা পেতে সময় লাগবে আরো কিছুদিন।

সাত মাসের অধিক সময় পর অনুশীলনে ফিরেছেন ফুটবলাররা। যে কারণে তাদের ফিটনেস পুরোপুরি ফিরিয়ে আনাই বড় চ্যালেঞ্জ কোচদের। জেমি ডে’র অনুপস্থিতিতে গত শনিবার থেকে খেলোয়াড়দের নিয়ে অনুশীলন শুরু করেছেন স্থানীয় তিন কোচ মাসুদ পারভেজ কায়সার, সৈয়দ গোলাম জিলানী ও মোস্তফা আনোয়ার পারভেজ।

কোনোদিন বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে, কোনোদিন কমলাপুর বীরশ্রেষ্ঠ সিপাহী মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে খেলোয়াড়দের ফিটনেস ফিরিয়ে আনার কাজ করছেন স্থানীয় কোচরা।

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ চ্যাম্পিয়ন বসুন্ধরা কিংসের ১১ ফুটবলার ক্যাম্পে যোগ দিয়েছেন মঙ্গলবার। কিংসের ১৪ ফুটবলার প্রাথমিক ক্যাম্পে ডাক পেলেও ইনজুরিতে থাকা মাসুক মিয়া জনি ও মতিন মিয়াকে ক্লাবটি জাতীয় দলের ক্যাম্পে ছাড়েনি। চ্যাম্পিয়ন দলের ফুটবলাররা যোগ দেয়ার পর বুধবার সকালে ৩১ জনকে পেয়েছিলেন স্থানীয় কোচরা।

সহকারী কোচ মাসুদ পারভেজ কায়সার বলেছেন, ‘খেলোয়াড়দের বিপ টেস্ট নেয়া হয়েছে। এর মাধ্যমে খেলোয়াড়রাই বুঝতে পারে সে কোন পর্যায়ে আছে। কোচের পক্ষেও কাজ করতে সুবিধা হয় কিভাবে পরের সেশনগুলো পরিচালনা করবেন। ফিটনেস লেভেলটা শুধু রানিংয়ের ওপর নির্ভও করে না। এখানে ফুটবল বিষয়ক অনেক কিছু আছে। বসুন্ধরার খেলোয়াড়রা ট্রেনিং করলেও প্রতিযোগিতামূলক কোনো ম্যাচ খেলেনি। ম্যাচ ফিটনেস টোটালি আলাদা একটা বিষয়। ওই ক্ষেত্রে আমরা অনেক পিছিয়ে আছি। কারণ, ৭-৮ মাস কোনো ম্যাচ খেলা হয়নি। ম্যাচ ফিটনেস আনার জন্য আরো পরিশ্রম করতে হবে। কারণ, পরিপূর্ণ পর্যায়ে যায়নি।’

আরআই/আইএইচএস/পিআর