‘সংঘাত সংবেদী সাংবাদিকতা ও তথ্য যাচাই’ বিষয়ক কর্মশালা

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:৪৪ পিএম, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯

পেশাগত ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ এবং জটিল সংঘাত সংবেদী বিষয়ে ইন-ডেপথ প্রতিবেদন প্রস্তুত ও তথ্য যাচাই করায় সাংবাদিকদের দক্ষতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে শুরু হলো সংঘাত সংবেদী সাংবাদিকতা এবং মূল ঘটনা যাচাই শীর্ষক দুই দিনব্যাপী কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বাংলাদেশ এনজিও’স নেটওয়ার্ক ফর রেডিও অ্যান্ড কমিউনিকেশনের (বিএনএনআরসি) উদ্যোগে ও ইন্টারনিউজের সহায়তায় এ প্রশিক্ষণ ২৮-২৯ সেপ্টেম্বর ঢাকায় ওয়াইডব্লিউসিএ প্রশিক্ষণ কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়। বিএনএনআরসি থেকে পাঠঅনো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

বিএনএনআরসি জানায়, সংঘাতময় ইস্যু নিয়ে প্রিন্ট, অনলাইন ও ইলেকট্রনিক গণমাধ্যমের সংবাদ সংগ্রহ ও সম্প্রচারে কর্মরত সাংবাদিকদের সক্ষমতা বৃদ্ধি; সংবেদনশীল প্রতিবেদন তৈরিতে তথ্য যাচাই-বাছাই এবং বস্তুনিষ্ঠ মূল্যায়নের মাধ্যমে প্রকৃত ঘটনা উপস্থাপনে সাংবাদিকদের সচেষ্ট করা এই কর্মশালার উদ্দেশ্য।

কর্মশালায় দৈনিক পত্রিকা, অনলাইন নিউজ পোর্টাল, টেলিভিশন চ্যানেল এবং জাতীয় গণমাধ্যম ইনস্টিটিউট ও প্রেস ইনস্টিটিউট বাংলাদেশের প্রতিনিধিসহ মোট ১৫ জন সাংবাদিক অংশগ্রহণ করেন।

কর্মশালাটি সঞ্চালনা করেন সাংবাদিক ও গণমাধ্যম উন্নয়ন বিশেষজ্ঞ সৈয়দ জাইন আল মাহমুদ এবং জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের প্রভাষক ইব্রাহীম বিন হারুন। এছাড়া কর্মশালায় উপস্থিত ছিলেন বিএনএনআরসি’র প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এ এইচ এম বজলুর রহমান।

বজলুর রহমান প্রশিক্ষণের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য বর্ণনা করার পাশাপাশি সংঘাত সংবেদী সাংবাদিকতা এবং সংবাদে তথ্য যাচাই-এর গুরুত্ব তুলে ধরেন।

তিনি বলেন, বিশ্বব্যাপী চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের চ্যালেঞ্জগুলো মোকাবেলা করে টিকে থাকা আমাদের গণমাধ্যম তথা গণমাধ্যমকর্মীদের জন্য এক বিশাল চ্যালেঞ্জ। আর এই চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় সমসাময়িক বিষয়ে জ্ঞান ও দক্ষতা অর্জনের কোনো বিকল্প নাই।

কর্মশালায় অংশগ্রহণকারীদের সংঘাতের ধরণ, উৎস এবং এর পেছনের কারণসমূহ, সংঘাতের তাত্ত্বিক বিশ্লেষণ, সংবেদী সাংবাদিকতার প্রয়োজনীয়তা, সংঘাত সংবেদী সাংবাদিকতার মূল বিষয়সমূহ এবং সাংবাদিকদের ভূমিকা, সংঘাত সংবেদী প্রতিবেদন তৈরির ক্ষেত্রে অবশ্য লক্ষণীয় বিষয়সমূহ, সংঘাত এবং সংঘাত পরবর্তী চিত্র : বাংলাদেশে রোহিঙ্গা বিষয়ক অভিজ্ঞতা, শরণার্থী, অভিবাসী, সংহতকরণ এবং স্থানান্তর শিবির ও জীবিকা এবং প্রত্যাবর্তন, শরণার্থী ও আশ্রয় কেন্দ্রের কর্মকর্তাদের সাক্ষাৎকার নেওয়ার কৌশল, বন্যা এবং মানবিক বিপর্যয়, দলবদ্ধ অপরাধ, মানবপাচার ইত্যাদি সংক্রান্ত প্রতিবেদন তৈরিতে লক্ষণীয় বিষয়সমূহ, নাগরিক সংঘাত এবং শান্তি প্রক্রিয়া সংক্রান্ত প্রতিবেদন তৈরিতে স্থানীয় জনগোষ্ঠী ও নিরাপত্তা বাহিনীর সাথে সম্পর্ক স্থাপন ইত্যাদি বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হয়।

অংশগ্রহণকারীদের সংঘাতে ক্ষতিগ্রস্ত গোষ্ঠী, সংঘাতের কারণ ও এর সমাধানকে গুরুত্ব দিয়ে দ্বন্দ্ব-সংঘাতের বিভিন্ন মানবিক দিক নিয়ে সংবাদ প্রতিবেদন তৈরিতে এই কর্মশালা সহায়তা করবে।

বিএনএনআরসি একটি গণমাধ্যম উন্নয়ন বিষয়ক সংস্থা, যা ২০০০ সালে আত্মপ্রকাশ করে এবং বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের অধীন এনজিও বিষয়ক ব্যুরো থেকে নিবন্ধিত হয়।

বিএনএনআরসির কর্মপ্রচেষ্টা হলো বাংলাদেশে গণমাধ্যমের দ্রুত পরিবর্তনশীল বাস্তবতার চ্যালেঞ্জ এবং সুযোগ-সুবিধাসমূহ বিবেচনায় রেখে গণমাধ্যমের জ্ঞানভিত্তিক ও চলমান ইস্যু উভয় বিষয় নিয়ে গণমাধ্যমের উন্নয়ন।

বিএনএনআরসি নলেজ-ড্রাইভেন মিডিয়া ডেভেলপমেন্টের ভূমিকায় আঞ্চলিক, দেশীয় ও আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে কাজ করে থাকে। এটি জাতিসংঘের ওয়ার্ল্ড সামিট অন ইনফরমেশন সোসাইটি (ডব্লিউএসআইএস) ও জাতিসংঘের ইকোনোমিক অ্যান্ড সোস্যাল কাউন্সিল-এর বিশেষ পরামর্শক মর্যাদা প্রাপ্ত সংস্থা এবং জাতিসংঘের ডব্লিউএসআইএস পুরস্কার-২০১৬, ২০১৭ এবং ২০১৯-এর বিজয়ী এবং চ্যাম্পিয়ন।

জেপি/এসএইচএস/এমএস