এফবিসিসিআইয়ের সহযোগিতা চায় নোয়াব

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:৫৭ পিএম, ২৪ অক্টোবর ২০১৯

সংবাদপত্র শিল্পের উন্নয়ন এবং এই শিল্পের সংকট সমাধানে এফবিসিসিআই-এর কাছে সহযোগিতা চায় সংবাদপত্র মালিকদের সংগঠন নোয়াব। বৃহস্পতিবার মতিঝিল ফেডারেশন ভবনে এফবিসিসিআই সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিমের সঙ্গে বৈঠককালে নোয়াব নেতারা এ সহযোগিতা চান।

বৈঠকে নোয়াব সভাপতি ও দৈনিক প্রথম আলো প্রকাশক ও সম্পাদক মতিউর রহমান বলেন, বর্তমানে সংবাদপত্র শিল্প অতীতের যেকোনো সময়ের চেয়ে কঠিন সময় পার করছে। এটি সেবা শিল্প হওয়া সত্ত্বেও এর কর্পোরেট ট্যাক্স ৩৫ শতাংশ, যা এই শিল্পের অগ্রগতির জন্য একটি বড় বাধা। এ অবস্থায় টিকে থাকতেই হিমশিম খেতে হচ্ছে এই শিল্পকে। অধিকাংশ সংবাদপত্রকেই ভর্তুকি দিয়ে চালাতে হচ্ছে বলেও জানান নোয়াব সভাপতি।

সরকার ঘোষিত নবম ওয়েজ বোর্ড প্রসঙ্গে নোয়াব সভাপতি বলেন, নতুন ওয়েজ বোর্ড বাস্তবায়নের কারণে সংবাদপত্র শিল্প চাপের মধ্যে পড়েছে। এই শিল্পের আয় বাড়ানো, কর্পোরেট ট্যাক্স কমিয়ে ১০ শতাংশ করাসহ শিল্পের উন্নয়নের জন্য সরকারের সঙ্গে নোয়াবের যোগাযোগ বৃদ্ধির সুযোগ তৈরি করে দেয়ার আহ্বান জানান নোয়াব সভাপতি। সরকার যাতে এই শিল্পকে বন্ধু হিসেবে ভাবে সেই প্রত্যাশা করেন পত্রিকার সম্পাদকরা।

এফবিসিসিআই সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম বলেন, সরকারের সাথে সংবাদপত্র শিল্পের মালিকদের যদি দূরত্ব থাকে সেটি এফবিসিসিআই-এর ম্যান্ডেটবহির্ভূত। যেহেতু ওয়েজ বোর্ড বাস্তবায়নের প্রক্রিয়ার শুরু থেকে এফবিসিসিআই-এর সম্পৃক্ততা ছিল না তাই এই বিষয়টির করণীয় মূল্যায়ন করা যেতে পারে।

তবে এই শিল্পের অর্থনৈতিক স্বার্থে যেমন- ভ্যাল্যু চেইনের কাঠামো ইত্যাদি বিষয়গুলো নিয়ে নোয়াবের সাথে যৌথভাবে পর্যালোচনার আশ্বাস দেন তিনি।

বৈঠকে আরও উপস্থিত ছিলেন, সমকাল প্রকাশক এ কে আজাদ, ডেইলি স্টার সম্পাদক ও প্রকাশক মাহ্ফুজ আনাম, মানবজমিন-এর প্রধান সম্পাদক মতিউর রহমান চৌধুরী, ভোরের কাগজ-এর মুদ্রাকর তারিক সুজাত, বণিক বার্তার সম্পাদক ও প্রকাশক দেওয়ান হানিফ মাহমুদ এবং সংবাদ সম্পাদক ও প্রকাশক আলতামাশ কবির।

এছাড়া এফবিসিসিআই সহ-সভাপতি মো. সিদ্দিকুর রহমান, হাসিনা নেওয়াজ, দিলীপ কুমার আগারওয়ালা, এফবিসিসিআই পরিচালক মুনির হোসেন এসময় উপস্থিত ছিলেন।

এসআই/এসএইচএস/এমকেএইচ