আসছে নতুন পত্রিকা ‘দেশ’

জাগো নিউজ ডেস্ক
জাগো নিউজ ডেস্ক জাগো নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:৪৮ পিএম, ২৩ অক্টোবর ২০২০

 

রূপসী বাংলা মিডিয়া লিমিটেডের মালিকানায় প্রকাশিত হতে যাচ্ছে দৈনিক পত্রিকা ‘দেশ’। একাধিক কাগজে কাজ করা ‘নেপথ্যের মানুষ’ সালেহ আহমদ এ পত্রিকাটির সম্পাদক। পত্রিকাটির দ্বিতীয় গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি হলেন আতাহার খান। তিনি দায়িত্ব পালন করবেন নির্বাহী সম্পাদক হিসেবে।

চলতি বছরের ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহের মধ্যেই পত্রিকাটি বাজারে আসবে বলে জানিয়েছেন আতাহার খান। ইতোমধ্যে পত্রিকাটিতে অনেকেই যোগদান করেছেন। হেড অফ বিজনেস অ্যান্ড মার্কেটিংয়ে যোগ দিয়েছেন সাজ্জাদ চিশতী।

বর্তমানে বনানীর ক্যাম্প অফিসে অস্থায়ীভাবে পত্রিকা গোছানোর কাজ চললেও ৩০ অক্টোবরের মধ্যেই নিজস্ব ভবনে এর কার্যক্রম শুরু হবে।

নতুন এ পত্রিকার বিষয়ে সম্পাদক সালেহ আহমদ বলেন, এটি আমাদের দীর্ঘদিনের প্রস্তুতি। দীর্ঘ সময় নিয়ে বোঝাপড়া, হাউজ গোছানোসহ নানান সিদ্ধান্তের পর আমরা এখন প্রস্তুত। এর সঙ্গে কোনো রাজনৈতিক দলের সম্পর্ক নেই। পত্রিকাটি হবে দল নিরপেক্ষ। তবে ‘দেশ’ মুক্তিযুদ্ধের চেতনা এবং জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শোষণমুক্ত রাষ্ট্র গঠনের স্বপ্নকে সমুন্নত রাখার প্রয়াসে থাকবে অঙ্গীকারবদ্ধ।

পত্রিকাটির সম্পাদক সালেহ আহমদ ১৯৫০ সালে সিলেটের কানাইঘাট উপজেলার রাজাগঞ্জ ইউনিয়নের পারকুল গ্রামে এক সম্ভ্রান্ত বংশে জন্মগ্রহণ করেন। বাবার চাকরি সূত্রে সালেহ আহমদ শৈশবকাল থেকেই ঢাকায় থাকেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাঙলা সাহিত্যে অনার্সসহ গ্রাজুয়েশন ডিগ্রি লাভ করেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র থাকাকালীন ১৯৭২ সালে জাতীয় দৈনিক বাংলার বাণীতে স্টাফ রিপোর্টার হিসেবে সাংবাদিকতা পেশায় যুক্ত হন। তৎকালীন সময়ে একজন সফল সংসদ রিপোর্টার হিসেবে সদ্য স্বাধীনতাপ্রাপ্ত নতুন বাংলাদেশের উদীয়মান তরুণ সাংবাদিক হিসেবে বিভিন্ন মহলে পরিচিতি লাভ করেন। ১৯৭২-৭৫ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশ বেতারের জাতীয় অনুষ্ঠানে সালেহ আহমদ সংসদ কার্যক্রমের ধারা বিবরণী সরাসরি প্রচার করতেন।

তিনি ১৯৭৬-৮৬ সাল পর্যন্ত কাস্টমস অফিসার পদে সরকারি চাকরি করেন। চাকরির সময় ঢাকা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর এন্টিস্মাগলিং সেলের অন্যতম সদস্য হিসেবে সম্মানের সঙ্গে কাজ করেন।

১৯৮৬ সালে বেক্সিমকোর কেন্দ্রীয় প্রশাসন ও জনসংযোগ প্রধান হিসেবে তিনি দশ বছর কর্পোরেট চাকরি করেন। জাতিসংঘের সাবসিডিয়ারি প্রতিষ্ঠান ‘ইন্টারন্যাশনাল পাবলিক রিলেশন্স এ্যাসোসিয়েশন’ ১৯৯০ সালের জন্য তিনি বাংলাদেশের সদস্য পদ লাভ করেন এবং একজন জনসংযোগ কর্মী হিসেবেও অত্যন্ত সুনামের সঙ্গে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেন।

এমএএস/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]