কলামিস্ট জব্বার হোসেনের জন্মদিন

জাগো নিউজ ডেস্ক
জাগো নিউজ ডেস্ক জাগো নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:১৯ এএম, ৩০ জানুয়ারি ২০২১
কলামিস্ট জব্বার হোসেন

জনপ্রিয় কলামিস্ট ও সম্পাদক জব্বার হোসেনের জন্মদিন আজ (৩০ জানুয়ারি)। তার জন্ম ও বেড়ে ওঠা ঢাকায়। সাংবাদিকতার শুরু সাপ্তাহিক ২০০০ এর মাধ্যমে, শাহাদত চৌধুরীর হাত ধরে। সাপ্তাহিক ২০০০-এ সহকারী সম্পাদক এবং সাপ্তাহিক-এ সহযোগী সম্পাদক হিসেবে কাজ করেছেন।

সম্পাদক হিসেবে পরিচিতি পান নাঈমুল ইসলাম খান প্রকাশিত ‘সাপ্তাহিক কাগজ’ ও ‘মিডিয়াওয়াচ’ এর মাধ্যমে। ‘দৈনিক আমাদের অর্থনীতি’ ও ‘দৈনিক আমাদের নতুন সময়’ এর উপসম্পাদক হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন। বর্তমানে যুক্ত রয়েছেন সংবাদমাধ্যম ‘আজ সারাবেলা’র সম্পাদক হিসেবে।

প্রথমে নটরডেম কলেজ, পরে সরকারি বিজ্ঞান কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিকের পাঠ শেষ করেন। চট্টগ্রাম
বিশ্ববিদ্যালয়, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের পর জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি
অর্জন করেন। রয়েছেন সুচিন্তা ফাউন্ডেশনের সঙ্গে যুক্ত। কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে জঙ্গিবাদবিরোধী
নিয়মিত কার্যক্রম ‘জাগো তারুণ্য রুখো জঙ্গিবাদ’ সেমিনারে ভূমিকা রেখে চলেছেন সক্রিয়ভাবে। জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে বিশেষ অবদানের জন্য প্রধানমন্ত্রীর তথ্যপ্রযুক্তিবিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের হাত থেকে পেয়েছেন পুরস্কার। দেশব্যাপী তরুণদের মাঝে ‘বঙ্গবন্ধুর গল্প শুনি, মুক্তিযুদ্ধের গল্প বলি’ শীর্ষক মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক প্রচার কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছেন।

মানবাধিকার ও নারীবাদ বিষয়ে আগ্রহী হয়ে ওঠেন বিশ্ববিদ্যালয় জীবনেই। লৈঙ্গিক রাজনীতি, মানবাধিকার, গণতন্ত্র ও মৌলবাদ বিষয়ক একাধিক সেমিনার, বক্তৃতায় অংশ নিয়েছেন দেশ ও দেশের বাইরে। যৌনতা ও প্রান্তিক যৌনতার মানুষদের নিয়েও তার গবেষণাপত্র রয়েছে। মানবাধিকার সংগঠন ‘আইন ও সালিশ কেন্দ্রের সঙ্গেও যুক্ত ছিলেন।

অনলাইন মিডিয়ায় জব্বার হোসেন পরিচিত নারীবাদী কলামিস্ট হিসেবে। যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক নারীবাদী সংস্থা
‘দ্য ফেমিনিস্ট’ এর সদস্য তিনি। তার নারীবাদবিষয়ক গ্রন্থের মধ্যে ‘নারীর শক্র?’ উল্লেখযোগ্য।
পার্ল পাবলিকেশন্স থেকে তার প্রকাশিত বই ‘নারীর শৃঙ্খল’ ও ‘নারীবিরোধী মিডিয়া’, যার ভূমিকা লিখেছেন সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা সুলতানা কামাল।

‘অরাজনৈতিক ব্যক্তিদের রাজনৈতিক সাক্ষাৎকার’, ‘একজন আদর্শ মানুষ মুহাম্মদ জাফর ইকবাল’ তার
আলোচিত সাক্ষাৎকার গ্রন্থ। ২০১৩ ও ২০১৪ সালে অনুষ্ঠিত ইউনেসকো জার্নালিজম অ্যাওয়ার্ডে জুরি
বোর্ডের সম্মানিত সদস্য ছিলেন। ২০১৪ সালে কানাডিয়ান জার্নালিজম অ্যাওয়ার্ডেও জুরি বোর্ডের সদস্য ছিলেন তিনি। যুক্ত ছিলেন বন্ধু মিডিয়া ফেলোশিপ অ্যাওয়ার্ডের সঙ্গেও।

ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পেয়েছেন সাংবাদিকতার জন্য পুরস্কার। এছাড়া নর্দান
ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ, প্রাইমএশিয়া ইউনিভার্সিটি, সাউথইস্ট ইউনিভার্সিটি এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর
রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ও তাকে বিশেষ সম্মানে ভূষিত করেছে।

জব্বার হোসেনের বাবা ফজলুল হোসেন গণপূর্ত বিভাগের একজন সিভিল ইঞ্জিনিয়ার ছিলেন।

এইচআর/বিএ/এসজে

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]